রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকবে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি অ্যামনেস্টি ও এইচআরডব্লিউ

0

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। এ ঘটনায় জাতিসংঘকে ব্যর্থ উল্লেখ করে সংস্থাটিকে কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়েছে তারা।
মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর নির্যাতনে প্রাণ হারিয়েছেন বহু রোহিঙ্গা, নিপীড়নের মুখে প্রাণ ভয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছে লাখ লাখ অধিবাসী।
এ অবস্থায় রোহিঙ্গা শরণার্থীর ঢলে বিপর্যস্ত বাংলাদেশের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।
তবে রোহিঙ্গা ইস্যুতে উদ্বেগ প্রকাশ ছাড়া, জাতিসংঘ কার্যকর আর কোনো পদক্ষেপ এখন পর্যন্ত নিতে না পারায় হতাশা প্রকাশ করেছে সংস্থা দুটি। রোহিঙ্গা মুসলিমদের রক্ষায় জাতিসংঘের ব্যর্থতার সমালোচনা করেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।
জাতিসংঘে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মুখপাত্র শেরিন টেডরোস বলেন,” আজ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক শুধু কাগজে-কলমে সীমাবদ্ধ থাকলে এর দায় জাতিসংঘের ওপর বর্তাবে। রোহিঙ্গাদের অধিকার রক্ষা করতে হবে। শরণার্থী ইস্যুতে বাংলাদেশ-মিয়ানমারের মধ্যে কূটনৈতিক সমাধানে কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে জাতিসংঘকে”।
জাতিসংঘে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের পরিচালক লুইস চারবোনেউ বলেন,” রোহিঙ্গা ইস্যুতে সু চি সরকারের ব্যর্থতায় আমরা হতাশ। সেনাবাহিনী রাখাইনজুড়ে জ্বালাও-পোড়াও চালাচ্ছে, কিন্তু রাষ্ট্রীয় নেতা হিসেবে এর দায় সু চিকেই নিতে হবে। রোহিঙ্গাদের পাশে থাকবো আমরা”।
এদিকে সু চি বিরোধী বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে বিশ্বজুড়ে। ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইরানসহ বিভিন্ন দেশে হাজারো মানুষ রোহিঙ্গাদের পক্ষে বিক্ষোভ করেছেন।
একদিকে মিয়ানমারের পক্ষে চীন-ভারতের স্পষ্ট অবস্থান, অন্যদিকে রোহিঙ্গাদের পাশে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য আর ফ্রান্স। এ ইস্যুতে এখনো নিশ্চুপ রাশিয়া। এ পরিস্থিতিতে সংকট সমাধানে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের দিকে নজর বিশ্ববাসীর।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.