সাংবাদিক মামুনকে হত্যার হুমকি দিলেন মনির ॥ থানায় জিডি

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নারায়ণগঞ্জ প্রতিদিন ডট কম ও দৈনিক আজকের বাণী পত্রিকার সম্পাদক আবদুল্লাহ আল মামুনকে মারধর ও হত্যার হুমকি দিয়েছে প্রতারক ও নেশাখোর বরিশাইল্লা মনির। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ৩ টায় সদর উপজেলার ফতুল্লা থানাধীন শিয়াচর এলাকায়।
জানা গেছে, প্রতারক,ছিনতাইকারী,নারী লোভী ও নেশাখোর মনির ওরুফে বরিশাইল্লা মনির দীর্ঘদিন ধরে নারায়ণগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকায় নিজেকে র‌্যাব-পুলিশের পরিচয়ে সাধারন মানুষের সরলতার সুযোগ নিয়ে মোটা অংকের টাকা আত্মসাৎ করে আসছে। এমনি ভাবে জালকুড়ি এলাকার কাশেম সিকদার নামের এক ব্যবসায়ীর ছেলেকে বিদেশে নিবে বলে প্রায় ১২ লাক্ষ টাকা আত্মসাৎ করে। পরে কাশেম মিয়ার ছেলেকে বিদেশ নিতে ব্যর্থ হলে মনিরের নিকট টাকা ফেরত চায় কাশেম ও তার পরিবার। প্রতারক মনির টাকা দিবে বলে দেই দিচ্ছি করে পালিয়ে বেরায়। এর পর হঠাৎ একদিন তাকে জালকুড়ি নাইনতালপাড়া এলাকায় মনিরের ছোট বউয়ের বাসায় দেখতে পায় কাশেম মিয়ার ছেলে রাজু। পরে তার নিকট টাকা চাইলে সে অসুস্থ্যতার ভান করে ফোন দেয় সাংবাদিক মামুনকে। তখন সাংবাদিক মামুনকে ওই প্রতারক মনির বলে তাকে নাকি মেরে ফেলতেছে। পরে মামুন সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় ফোন দিয়ে মনিরকে উদ্ধার করে। পরে ঘটনার আসল রহস্য বেরিয়ে আসে। টাকার জন্য তাগিদ দিলে সে এরকম অভিনয় করে। এসময় কাশেম মিয়ার লোকজন সাংবাদিক মামুনকে বিষয়টি সমাধান করে দেয়ার জন্য বলে। পরে মনির ও কাশেম মিয়ারসহ জালকুড়ি এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে ৬ মাসের সময়  নিয়ে দেয়া হয় মনিরকে। কিন্তু ৬ মাস পেরিয়ে গেলেও টালবাহানা করে প্রতারক মনির। এরপর আবারো ১ মাস,পরে ২ মাসের সময় নিয়ে দেয় সাংবাদিক মামুন। এতো সময় দেয়ার পরেও টাকা না দেয়ায় সোমবার বিকালে মনিরকে টাকা দেয়ার পরামর্শ দেয় মামুন। এতে প্রতারক মনির ক্ষিপ্ত হয়ে মামুনকে মারধর এবং হতার হুমকিসহ মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করার কথা বলে চলে যায়। এ ঘটনায় সাংবাদিক মামুন বাদি হয়ে একটি সাধারন ডায়রি দায়ের করেন ফতুল্লা মডেল থানায়। যাহার নং- ৬৬৭ তারিখ- ১৩-০২-২০১৭ ইং।
এ বিষয়ে পাওনাদার কাশেম মিয়ার বলেন, মনির একজন নেশাখোর,বদমাইশ,নারী লিপ্সু ও খারাপ প্রকৃতির লোক সে আমার ছেলেকে বিদেশে পাঠাবে বলে আমার নিকট থেকে ১২ লক্ষ টাকা প্রতারনা করে নেয়। পরে তা না দিয়ে উল্টো আমাকে ও আমার ছেলেকে মিথ্যা মামলা দেয়ার হুমকি দেয়। পরে এ ঘটনাটি সমাধানের জন্য চেষ্টা করে সাংবাদিক মামুন। তাকেও মারধর ও হত্যার হুমকিসহ মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাসাবে বলে পায়তারা করছে বরিশাইল্লা মনির। তাকে গ্রেফতারে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য প্রশাসনের নিকট দাবী জানাই।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.