পাঠ্যসূচি সাম্প্রদায়িক করণের প্রতিবাদে না’গঞ্জে হিন্দুনেতাদের মানববন্ধন

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

পাঠ্যসুচি সাম্প্রদায়িক করণের প্রতিবাদে ও নির্বাচন কমিশনে সংখ্যালঘু প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করণের দাবিতে নারায়ণগঞ্জ জেলা ধর্মীয় জাতিগত সংখ্যালঘু সমন্বয় কমিটি ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৩ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার গোপিনাথ দাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার দাসের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন , নারায়ণগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুজন সাহা , যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কমলেশ সাহা, মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিখন সরকার শিপন, মহানগর হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি লিটন চন্দ্র পাল , সাধারণ সম্পাদক নিমাই দে, ফতুল্লা থানা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীলিপ মন্ডল , বন্দর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শংকর কুমার দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক রিপন দাস , সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শিশীর ঘোষ অমর , রুপগঞ্জ থানা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি রমাকান্ত সরকার , মহানগর ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এড. অঞ্জন দাস , তপন ঘোষ সাধু , কৃষ্ণা দাস সহ অনেকেই ।

মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিখন সরকার শিপন বলেন , শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্য যে সাম্প্রদায়িকতা করা হয়েছে তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। ।অবিলম্বে  তা বাতিল করে বিশেষ শিক্ষক প্রতিনিধির মাধ্যমে তা সংশোধনের দাবি করেন এবং নতুন নির্বাচন কমিশনে সংখ্যালঘু প্রতিনিধিত্ব রাখতে জোর দাবি জানান।

মহানগর হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি লিটন চন্দ্র পাল বলেন , সরকার হেফাজতকে খুশি করতেই শিক্ষাসূচিতে এই অনিয়ম করছে। এতে করে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংসের দিকে । তাই সুশীল শিক্ষক প্রতিনিধির মাধ্যমে সঠিক শিক্ষা ব্যবস্থা করতে হবে। সংখ্যালঘু সম্প্রদায় বিভিন্ন হামলা ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। আমরা কোন কিছুর সঠিক বিচার পাইনি। আগামী নতুন নির্বাচন কমিশনে সংখ্যালঘু প্রতিনিধিত্ব রাখতে জোর দাবি জানাচ্ছি।

সমাবেশ শেষে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে মিছিল বের করে। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ২ নং রেল গেইট এলাকায় এসে সমাপ্ত হয়।

Leave A Reply