হাওরবাসিদের জন্য সাংস্কতিক জোটের ব্যাতিক্রমী গানের মিছিল

0
শেয়ার করুনShare on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0Print this pageEmail this to someoneShare on Tumblr0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

“ডুবছে  হাওর বাসি আমরা কী জাগবো না” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো ব্যতিক্রমী এক গানের মিছিল। চাষাড়া শহীদ মিনার থেকে বিকেল ৫টায় একটি গানের দল গান গাইতে গাইতে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিন করে মন্ডলপাড়া নগর ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় এক দল তরুণ অর্থ সংগ্রহের জন্য তৈরী বাক্স নিয়ে  সাধারন মানুষের কাছে যেয়ে অর্থ উত্তোলন করেন।  উক্ত কার্যক্রমে স্বাগত বক্তব্য রাখেন হাওরবাসীদের জন্য ত্রান সহয়াতায় গঠিত সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক ভবানি শংকর রায়।
কমিটর সদস্য সচিব মশিউর রহমান খান রিচার্ডের সঞ্চালনায় মিছিলে সাংস্কৃতিক জোটের বিভিন্ন গানের দলের শিল্পীরা গানের মাধ্যমে মানুষকে সহযোগীতার উদার আহ্বান জানায়। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কমিটির  যুগ্ম আহ্বায়ক আহমেদ বাবলু, আফসার বিপুল, কমিটির আন্যান্য সদস্যদের মধ্যে শিমুল মুহাম্মদ, সুলতানা অক্তার,আফরীন হিয়া, সুমাইয়া সেতু, মিলন মাহমুদ, রাকিব সোহাস সহ নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেত্রীবৃন্দ ।
মিছিলটি শহরের বিভিন্ন মার্কেটের সামনে থেমে থেমে মানুষদের সহযোগীতার হাত বড়িয়ে দিতে আহ্বান জানান। এ সময় পথচারীরা তাদের এই অভিনব কর্যক্রমকে সাধুবাদ জানান। একজন রিক্সাচালককেও সহযোগীতায় এগিয়ে আসতে দেখা যায়।
নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাধারান সম্পাদক ধীমান সাহা জুয়েল জানান, আমাদের ত্রান উত্তোলনের এই কার্যক্রম আগামী শুক্রবার পর্যন্ত চলবে। আমরা আমাদের সাধ্যমত চেষ্টা করবো এ দুর্যোগ মোকাবেলায় ত্রান ও অর্থ দিয়ে সুনামগঞ্জের হাওরের দুর্গত সহযোগীতা করার। এছাড়াও হাওরবাসী নানাবিধ সমস্যার স্থায়ি সমাধানের জন্য আমরা নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোট ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবো ।
মাদককে না বলতে হবে, সর্বাত্মক প্রতিরোধ করতে হবে : সহ. পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) মো. আব্দুর রশিদ
ষ্টাফ রিপোর্টার পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) মো. আব্দুর রশিদ বলেন, আমাদের চোখ কান বন্ধ রাখলে চলবে না মাদকের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। মাদককে না বলতে হবে। মাদেকর পাশাপাশি ইভটিজিংয়ের কারণে একজন শিক্ষার্থীর জীবনও বিপন্ন হতে পারে। নিজেদের পরিবারেও এর বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে। এ বিষয়েও আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে।
ভিডিওচিত্র দেখে আমরা যা শিখলাম তা অন্যদের জানাতে হবে। মাদকের প্রভাবে একটি পরিবার ধ্বংস হয়ে যেতে পারে যার সবচেয়ে বড় উদাহরণ ঐশী। মাদকের কারণে মানুষ তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছে।
এ ছাড়াও তিনি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা হচ্ছে সবচেয়ে মহাদুর্যোগ। একটি দুর্ঘটনার কারণে একটি পরিবারের সারা জীবনের কান্নার কারণ হতে পারে। তাই আমাদের এ বিষয়েও সচেতন হতে হবে।
উল্লেখ্য, ফতুল্লায় আদর্শ স্কুলের শিক্ষার্থীরা মাদক ও ইভটিজিংবিরোধী শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠান করেছে। শনিবার দুপুরে ওই স্কুল মিলনায়তনে সড়ক দুর্ঘটনা, ইভটিজিং ও মাদকের অপব্যবহার প্রতিরোধে সচেতনতা সভায় এ শপথ করেন স্কুলটির শিক্ষার্থীরা। নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় এ সচেতনতা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
শিক্ষার্থীদের শপথবাক্য পাঠ করান সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) মো. আব্দুর রশিদ। নারায়ণগঞ্জ আদর্শ স্কুলের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. আজিজুর রহমানের সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ শহর ও যানবাহন শাখার পুলিশ পরিদর্শক একেএম শরফুদ্দিন। সভায় সড়ক দুর্ঘটনা, ইভটিজিং ও মাদকের কুফল সম্পর্কে বেশ কয়েকটি ভিডিওচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

শেয়ার করুনShare on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0Print this pageEmail this to someoneShare on Tumblr0

Leave A Reply