সোনারগাঁয়ে বিষধর সাপের উপদ্রব

0
শেয়ার করুনShare on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0Print this pageEmail this to someoneShare on Tumblr0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

সোনারগাঁয়ের সাদিপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের কাজহরদীতে ভয়ানক কয়েক প্রজাতীর সাপের উপদ্রব দেখা দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। গেল কয়েকদিনে অত্র কাজহরদী এলাকার নিকটে ব্রক্ষ্মপুত্র নদীর পাড়ে, বহু বছর পুরোনো কাজহরদী ঈদগাহের উত্তরে বেলপাড়া ও নগর টেংগাব গ্রামের পূর্ব দিকে নদীন পাড়ে, কাজহরদী ঈদগাহের দক্ষিণে নদীর পাড়ে ধান চাষের ক্ষেতে, চড়ের মধ্যে এমনকি লোকালয়ের আশেপাশেও ভয়ানক সাপের আনাগোনা দেখা দিয়েছে এবং গেল কয়েকদিনে জনসাধারণের হাতে ও বিভিন্ন পরিবহনের চাকায় পিষ্ট হয়ে কয়েকটি বড় মাপের বিষধর সাপ মারা যাবার খবর পাওয়া গেছে। কাজহরদী গ্রামের হাফেজ নবীর হোসেন গতকাল গণমাধ্যমকে জানান ‘বেলপাড়া গ্রামের পূর্বে কয়েকদিন আগে এক মহিলা নদীতে যাবার পথে এক জায়গায় বেশ কয়েকটি বাচ্চা সহ বিষধর সাপকে দেখে ভয়ে অজ্ঞান হয়ে যান এবং তিনি কয়েকদিন অসুস্থ ছিলেন। অতি সম্প্রতি অলিপুরা থেকে কাজহরদী মাদ্রাসা অভিমুখে আসা রাস্তায় পাশে হারুন অর রশিদের বাড়ির গেইটের সামনে রাতে মাছ ধরতে আসা যুবকরা লাইটের আলোতে একটি ভয়ানক সাপ দেখতে পান এবং মাছ ধরার টেডা দিয়ে বিদ্ধ করে সাপটিকে মেরে ফেলেন। তার কয়েকদিন পর একই রাস্তায় রাস্তা পার হবার সময় একটি সিএনজি বেবীর নীচে পড়ে একটি ভয়ানক সাপ মারা যায় এবং সিএনজি চালকের তথ্যমতে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে সাপটিকে মৃত অবস্থায় দেখতে পাই। তাছাড়া গত পরশুদিন কাজহরদী মাদ্রাসা সংলগ্ন একটি গাছে একটি ভয়ানক সাপ দেখতে পেলে আরও কয়েকজন সেখানে জড়ো হলেও সাপটিকে মারতে ব্যর্থ হলে জনজীবনে আরও ভয়ভীতি দেখা দিয়েছে। বর্তমানে নদীর পাড়ে সাপের ভয়ে পাকা ধান কাঁটতে পারছেনা কৃষক এবং রাতে চলাচলের ক্ষেত্রে জনগণের মধ্যে মারাত্মক ভীতির সঞ্চার হয়েছে বলেও জানা গেছে। অপরিকল্পিত নগরায়ন ও যত্রতত্র বাড়িঘর নির্মাণের কারণে সাপের বাসস্থান এলোমেলো হয়ে যাওয়ায় এখন এই সাপগুলো লোকালয়ে অবস্থান করছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। এই অবস্থা থেকে উত্তোরণের জন্য উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন স্থানীয়রা।

শেয়ার করুনShare on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0Print this pageEmail this to someoneShare on Tumblr0

Leave A Reply