রূপগঞ্জে বড় ভাইয়ের ছুড়িকাঘাতে ছোটভাই নিহত

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বড় ভাইয়ের ছুড়িকাঘাতে ছোটভাই মারা গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনা ধামাচাপা দিতে তড়িগড়ি নিহতের লাশ দাফন করে ফেলেছে তার স্বজনরা। ঘটনার পর থেকে বড়ভাই পলাতক রয়েছে। শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার কেন্দুয়াপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানান, কেন্দুয়াপাড়া এলাকার মোঃ বাকি মিয়ার মাদকাসক্ত ছেলে জহিরুল ইসলাম (৩০) স্থানীয় এক যুবকের কাছ থেকে একটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে আনে। এই ঘটনায় সেই যুবক তার বড়ভাই আব্দুল হেকিমের কাছে নালিশ করে। টেক্সাইল কারখানায় কর্মরত শ্রমিক হেকিম রাত ১০টায় কর্মস্থল থেকে ফিরে তার ছোটভাই জহিরুলকে মোবাইল ছিনিয়ে আনার কারন জিজ্ঞাসা করলে দু‘ভাইয়ের মাঝে বসচা বাধে। এক পর্যায়ে জহিরুলের কোমড়ে থাকা ছোরা বের করে বড়ভাই হেমিককে আঘাত করতে যায়। এসময় তার চাচী জামিলা বেগম ফেরাতে গিয়ে মারত্মক রক্তাক্ত জখম হয়। পরে হেকিম ছোট ভাইয়ের কাছ থেকে ছোড়া কেড়ে নিয়ে জহিরুলের বুকের ডানপাশে আঘাত করে। এতে সে গুরুতর জখম হলে লোকজন জামিলা ও জহিরুলকে স্থানীয় হাজী দায়েমউদ্দিন হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ সুরঞ্জন জামিলার চিকিৎসা করলেও জহিরুলের অবস্থা আশংকাজন হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। এদিকে জহিরুলের আত্মীয়স্বজনরা গাড়ি আনার কথা বলে জহিরুলকে হাসপাতালের বাইরে ফেলে পালিয়ে আসে। প্রায় ২ ঘন্টা রক্তক্ষরণের পর রাত ১ টার দিকে জহিরুল মারা যায়। পরে তার আত্মীয়স্বজনরা এসে লাশ নিয়ে যায়। এদিকে ঘটনা ধামাচাপা দিতে শনিবার ভোরে তড়িগড়ি লাশ জানাযা দিয়ে দাফন করে ফেলে। ঘটনার পর থেকে বড়ভাই হেকিম পলাতক রয়েছে।
এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, এ ধরনের ঘটনা শুনেছি। কিন্ত লাশ দাফন হয়ে গেলে ও কোন অভিযোগকারী না পেলে আমাদের আসলে কিছু করার নেই। তারপও বিষয়টি দেখছি।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.