ফতুল্লা মডেল থানার মাসিক অপরাধ হালচিত্র

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

ফতুল্লা মডেল থানার মাসিক অপরাধ হালচিত্রে গত এপ্রিল মাসের ৩০দিনে ৪টি ধর্ষনের মামলাসহ মোট ১২২টি মামলা রুজু হয়েছে। গত এপ্রিল মাসে ৪৫ লক্ষ ৫৮ হাজার ৭শ ৫০ টাকার বিভিন্ন প্রকার মাদক জাতীয় দ্রব্যদি উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। এই মাসে মোট ২ টি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে। এই মাসের আইন শৃঙ্খলা গত মাসের চেয়ে উন্নতি ঘটেছে বলে মনে করছেন সচেতন মহল।
পুলিশ সূত্রে জানাযায়, ফতুল্লা মডেল থানায় গত এপ্রিল মাসে ৩০ দিনে বিভিন্ন অপরাধে মোট ১২২টি মামলা রুজু হয়েছে। মামলা গুলো হলো, ধর্ষন মামলা ৪টি, অস্ত্র মামলা ১টি, চুরি মামলা ১ টি,নারী শিশু ও যৌতুক মামলা ৭টি, মাদক মামলা ৮৭টি, মারামারি (আদার সেকশন) মামলা ২১টি। তবে এই মাসে কোন হত্যা বা খুনের ঘটনা ঘটেনি এবং কোন মামলাও নেই।
মার্চ মাসে থানা পুলিশ মাদক বিরোধী অভিযানে ইয়াবা ট্যাবলেট ১২ হাজার ৫শ‘ ৬০ পিস, ফেন্সিডিল ২১৫ বোতল, হেরোইন ৫৯ গ্রাম, এবং গাঁজা ৫ কেজি ৭শ‘৫০ গ্রাম উদ্ধার করেছে।
মাদক সেবন ও আইন বিরোধী ত্রুটির অভিযোগে আটক করে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৫জনকে সাজা প্রদান করেছে। নন এফআইআর ৯ জনকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করেছে থানা পুলিশ।
ফতুল্লা থানার পুলিশ গত এপ্রিল মাসে জি.আর ওয়ারেন্ট তামিল করেছে ১৩৫টি, এবং সি.আর ওয়ারেন্ট তামিল করেছে ৪৮টি। সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার করেছে ৯ জন।
ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ হাজী শাহ মোহাম্মদ মঞ্জুর কাদের এস,আই কাজী এনামুল হক, শাফীউল আলম,এ.এস.আই তারেক আজিজ,তাজুল ইসলামসহ ছয় পুলিশ জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার হিসেবে জেলা পুলিশ সুপারের মাসিক কল্যান সভা থেকে পুরস্কার পেয়েছেন। এত ফতুল্লা থানা পুলিশের ভাব মুর্তি যেমন উজ্জল হয়েছে, তেমনি কতিপয় কিছু অফিসারের জন্য ভাব মূর্তি কিছুটা ক্ষুন্ন হয়। কতিপয় কয়েকজন এস,আই এবং এ,এস,আই এরা মাদক উদ্ধারের নামে নিরীহ মানুষকেও হয়রানির একাধিক অভিযোগ রয়েছে। সন্ধ্যার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত আসামী ছাড়া ধরার তদ্ববীর চলতে থাকে থানায়। মূলত: প্রকৃত মাদক বিক্রেতারা রয়ে যায় ধরা ছোঁয়ার বাহিরে সেবন কারীদের এনেই মামলা দেয়ার অভিযোগ রয়েছে একাধিক। থানায় পুলিশের সোর্সদের দাপট ও প্রভাব একটু বেশি তা দেখা যায় সর্ব সময়। আজও সেই জাকিরের বিরুদ্ধে তেমন কোন ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ । জাকিরের মতো এখন অনেক সোর্স মাদক বিক্রি করছে মাদক সেবন করে আসছে। আবার বীর দর্পে থানায় পুলিশের সোর্স হিসেবে চলাফেরা করে আসছে। এ যেন সোর্সের কাছে ফতুল্লা মডেল থানার কয়েক জন অফিসার অসহায় হয়ে পড়েছে। সোর্সদের বাসায় কতিপয় পুলিশ হরদমে আসা যাওয়া চলছে। এযেন পিসাতো মামাতো ভাই। আজও এই নীতি পরিবর্তন করতে পারেনি ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ। ফতুল্লার মডেল থানার পুলিশের দাবী আগের তুলনায় বর্তমানে আইন শৃঙ্খলা ভালো।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.