শিশু হৃদয় হত্যার বিচার দাবীতে আড়াইহাজারে মানব বন্ধন

0

হারাধন চন্দ্র দে,বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে মা ও তার প্রেমিক মিলে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র শিশু হৃদয়(৯)কে পুড়িয়ে নির্মমভাবে হত্যা ও তার ছোটভাই প্রথম শ্রেনীর ছাত্র শিশু জিহাদ(৭)কে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টার কঠোর শাস্তির দাবীতে স্কুলের শিক্ষার্থী ও শিক্ষক সমাজ বাড়ৈপাড়া এলাকায় মানব ন্ধন করেছে।
১৬এপ্রিল সোমবার বেলা ১১টার দিকে ৩৫নং বাড়ৈপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন সড়কে এ মানববন্ধন পালন কারা হয়।
মানববন্ধনে এ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থী ছাড়াও বেশ কয়েকটি বিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক,উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
মানববন্ধনে মা শেফালী আক্তার ও তার প্রেমিক রাশেদুল ইসলাম মোমেনের কঠোর শাস্তি দাবী করেন।
মানববন্ধনকারীরা ক্ষুব্দ প্রতিক্রীয়া জানিয়ে বলেন,ঘটনার ৫দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ মূল অভিযুক্ত রাশেদুল ইসলাম মোমেনকে গ্রেফতার করছেনা। মানববন্ধনে আগুনে ঝলসানো শিশু জিহাদকে সামনে আনলে উপস্থিত লোকজনদের মধ্যে কান্নার রোল পড়ে যায়। এলাকাবাসী রাশেদুল ইসলাম মোমেনকে খুব দ্রæত গ্রেফতার করে সম্ভাব্য মদদদাতাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য দাবী জানান।
উল্লেখ্য,গত ১২এপ্রিল গভীর রাতে উপজেলার উচিৎপুরা ইউনিয়নের বাড়ৈপাড়া এলাকায় মা শেফালী আক্তার ও তার প্রেমিক রাশেদুল ইসলাম মোমেন এর কুকির্তি দেখে ফেলায় মা ও প্রেমিক মিলে দুই শিশু সন্তান হৃদয় ও জিহাদকে পুড়িয়ে হত্যার উদ্দ্যেশে তাদের দুজনকে শরীরে কাথা ও তোষক পেঁচিয়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। বাড়ির লোকজন শিশুদের চিৎকার শুনে বের হয়ে দেখে শিশু হৃদয় আগুনে সম্পূর্ণরূপে পুড়ে মৃত্যু বরণ করে এবং শিশু জিহাদ এর শরীর আগুনে পুড়ছে। ঐ সময় বাড়ির লোকজন আহত জিহাদকে উদ্ধার করে প্রথমে আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। পরে পুলিশ হত্যার সাথে জড়িত মা শেফালী আক্তারকে গ্রেফতার করলে সে আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে হত্যার বিস্তারিত বর্ণনা দেন।

Leave A Reply