সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা করলেন শ্রমিকনেতা পলাশ

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

সংবাদ প্রকাশের জের ধরে জাতীয় ও স্থানীয় চারটি দৈনিক পত্রিকার বিরুদ্ধে মানহানী ও আইসিটি আইনে মামলা দায়ের করেছে শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রমিক কল্যাণ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক ও ফতুল্লা আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি কাউসার আহম্মেদ পলাশ ।

বৃহস্পতিবার ( ৫ এপ্রিল ) সকাল ১১ টায় কাউসার আহমেদ পলাশ তার আইনজীবী এডভোকেট জাকারিয়া হাবিব’র মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত ( খ, অঞ্চল ) সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল মহসিন’র আদালতে এই মামলা দায়ের করেন । এ সময় আদালত বাদীর উপস্থিতিতে ফোর্স দ্বারা কার্যবিধি ২০০ দ্বারা জবানবন্দি গ্ৰহণ করেন । এবং পরবর্তীতে পর্যালোচনা করে আদেশ দিবেন বলে জানান ।

মামলাকৃত জাতীয় পত্রিকা যুগান্তর , যুগান্তর অনলাইন ও ইত্তেফাক এবং স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক ডান্ডিবার্তা ও দৈনিক সময়ের নারায়ণগঞ্জ ।

বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট জাকারিয়া হাবিব জানান, জাতীয় পত্রিকা যুগান্তরের প্রকাশক সাইফুল আলম ও সম্পাদক সালমা ইসলাম এবং ফতুল্লা প্রতিনিধি আল আমিন প্রধান বিরুদ্ধে মানহানি ও আইসিটি আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে । এবং যুগান্তর পত্রিকা ও অনলাইনের বিরুদ্ধে দশ কোটি ও দশ কোটি মোট বিশ কোটি টাকা ও জাতীয় দৈনিক পত্রিকা ইত্তেফাকের জেলা প্রতিনিধি স্থানীয় পত্রিকা ডান্ডিবার্তার প্রকাশক ও সম্পাদক হাবিবুর রহমান বাদলের বিরুদ্ধে পাঁচ কোটি এবং স্থানীয় পত্রিকা সময়ের নারায়ণগঞ্জের সম্পাদক জুয়েল আহমেদের বিরুদ্ধে পাঁচ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে ।

মামলার বাদী শ্রমিক নেতা কাউসার আহাম্মদ পলাশ জানান, আমাকে রাজনৈতিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে নারায়ণগঞ্জের কিছু অপসাংবাদিকদের একটি সিন্ডিকেট মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক রিপোর্ট করেছে। কিন্তু রিপোর্টে তার কোন বক্তব্য নেওয়া হয়নি। এবং কি প্রতিবাদ দেয়া হলে তাও নেয় হয়নি। বরং অমানবিক আচরণ ও আমার চরিত্র হরন করেছে। আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশ নেব জেনে একটি মহল ষড়যন্ত্র শুর করেছে বলে অভিযোগ এই শ্রমিক নেতার।

প্রসঙ্গত, গত ৩ এপ্রিল দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক যুগান্তর, যুগান্তর অনলাইন ও স্থানীয় দৈনিক ডান্ডিবার্তায় শ্রমিক লীগ নেতা কাউসার আহাম্মদ পলাশ চাঁদাবাজ সন্ত্রাসী গডফাদার শিরোনামে রিপোর্ট প্রকাশিত হয়।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.