জনগনের কল্যাণে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার দাবী কলেজ শিক্ষার্থীদের

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা মনে করেন এ.কে.এম সেলিম ওসমানের আবারো এমপি হওয়ার প্রয়োজন রয়েছে। সেলিম ওসমান এমপি হলে সাধারণ মানুষের কল্যাণ হবে। হবে নারায়ণগঞ্জের শিক্ষা ব্যবস্থার মানন্নোয়ন, সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা সহ হবে সাধারণ মানুষের মৌলিক দাবী গুলোর বাস্তবায়ণ ঘটবে। যে গুলো থেকে নারায়ণগঞ্জের মানুষ বছর যাবৎ অবহেলিত ছিল।

শনিবার ২৪ ফেব্রæয়ারী পৌর ওসমানী স্টেডিয়ামে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হওয়া নারায়ণগঞ্জ কলেজের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা এমপি সেলিম ওসমান সম্পর্কে এমন মন্তব্য করতে শোনা গেছে। সকাল ৯টা থেকে শুরু হওয়া নবীন বরণ অনুষ্ঠানটি চলে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ কলেজ ছাড়াও সরকারী মহিলা কলেজ, ও সরকারী তোলারাম কলেজের প্রায় ৭হাজার শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে।

এর আগে প্রধান অতিথির সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এমপি সেলিম ওসমান বলে ছিলেন, পাউয়ার বলো আর জীবন বলো দুইটাই আমার কাছে খুব কম আছে। আমি কতদিন বাচঁবো তা জানি না। কিন্তু আমি তোমাদের মাঝে সারাজীবন বেঁচে থাকতে চাই। আমি ইউনিয়ন গুলোতে নিজস্ব অর্থায়নে স্কুল নির্মাণ শেষ করেছি এখন কলেজ গুলোতে হাত দিয়েছি। আমি চাই আমার নারায়ণগঞ্জের ছেলেরা উন্নত শিক্ষার জন্য ঢাকা যাবে না। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা যাবে না। নারায়ণগঞ্জের কোন ছেলে মেয়ে বেকার থাকবে না। আমি শুরু করেছি। শেষটা তোমাদের করতে হবে।

পরিপ্রেক্ষিতে একজন শিক্ষার্থী মঞ্চে সেলিম ওসমানকে উদ্দেশ্য করে বলে, আপনি আবারো এমপি হবেন। এমপি হিসেবে আপনাকে প্রয়োজন আছে। এ সময় সেলিম ওসমান ওই শিক্ষার্থীর কাছে প্রশ্ন রাখেন কেন আমি এমপি হবো? উত্তরে শিক্ষার্থী বলে আপনি এমপি হলে সাধারণ মানুষের উপকার হবে। আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো উন্নত হবে। সুচিকিৎসার ব্যবস্থা হবে। আপনি যেভাবে সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করেন এমন করে এর আগে অন্য কেউ চিন্তা করেন নি। তাই আপনাকে আবারো আমরা এমপি হিসেবে পেতে চাই।

এ সময় উপস্থিত সকল শিক্ষার্থী চিৎকার করে হাত উচিয়ে ওই শিক্ষার্থীর বক্তব্যকে সমর্থন জানায়। এ সময় সেলিম ওসমান বলেন, আমি আগেই ঘোষণা দিয়েছি আমি আবারো নির্বাচনে অংশ নিবো কি নিবো না সেটা আমি আগামী ৩০ জুন সিদ্ধান্ত জানাবো। এখানো আমি একই কথা বলবো আগামী ৩০ জুন আমি আমার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবো।

অপরদিকে এমপি সেলিম ওসমান যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গেলে তিনি শিক্ষার্থীদের মাঝে মিশে যান বন্ধু হিসেবে। কারো জন্য তিনি হয়ে যান বন্ধু আবার কারো জন্য দাদু। সেই সাথে শিক্ষার্থীদের সাথে আনন্দ উপভোগ করতে চলে যান মাঠে। তখন শিক্ষার্থীরাও অভয়ে অংশ নেন এমপি সেলিম ওসমানের সাথে। এমপি সেলিম ওসমানের সাথে সেলফি তোলার সময় প্রায় অর্ধশত শিক্ষার্থী তাঁর বক্তব্যের রেশ টেনে কেউ বন্ধু কেউবা আবার দাদু সম্বোধন করে বলেন আমাদের দাদুকে, আমাদের বন্ধুকে আমরা আবারো এমপি হিসেবে পেতে চাই। আপনি নির্বাচনে দাড়াবেন আমরা বন্ধু হিসেবে আপনার পাশে থাকবো।

নবীন বরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বেগম বাবলী। আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা ইউনিটের কমান্ডার মোহাম্মদ আলী, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, নারায়ণগঞ্জ কলেজের অধ্যক্ষ ফজলুল হক রুমন রেজা সহ নারায়ণগঞ্জের পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ সহ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দরা।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.