সোনারগাঁয়ে আলী হত্যাকান্ডের ঘটনায় থানায় মামলা

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

সোনারগাঁয়ে যুবলীগ কর্মী মোহাম্মদ আলী হত্যাকান্ডের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। ৩দিন পর নিহতের মা বাদি হয়ে শনিবার ২১ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ২০/২৫ জনকে অজ্ঞাত আসামী দেখিয়ে মামলাটি দায়ের করেন। এদিকে, হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে আটক ৭ আসামীকে শনিবার বিকাল পর্যন্ত আদালতে প্রেরণ করেনি সোনারগাঁ থানা পুলিশ।

জানাগেছে, উপজেলার পৌর এলাকার শাহাপুর গ্রামের আরজান আলীর ছেলে পিরোজপুর ইউনিয়নের কান্দারগাঁও গ্রামে বসবাসকারী যুবক মোহাম্মদ আলী প্রতিপক্ষের হাতে গত ৩ জানুয়ারী বুধবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে খুন হয়। দুষ্কৃতিকারীদের হাতে রক্তাক্ত মুমুর্ষ মোহাম্মদ আলী শংকটাপন্ন অবস্থায় সোনারগাঁ থানা পুলিশের কাছে তার হত্যার সাথে জড়িতদের নাম এবং ঘটনার বিবরণ দিয়ে যায়। সেই জবানবন্দির ওপর ভিত্তি করে ওই রাতেই ঘটনার মুল হোতা পিরোজপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোশারফ হোসেনসহ ৬ আসামী ও পরের দিন আরো এক আসামীসহ মোট ৭ জনকে আটক করে থানা পুলিশ। কিন্তু পুলিশ আটককৃত আসামীদের হাজতে রক্ষিত আইনের তোয়াক্কা না করে মামলা করা হয়নি অজুহাতে ৩দিন থানা হাজতে আটক রেখেছে বলে আসামীদের পরিবারের অভিযোগ।

সোনারগাঁও থানার ওসি (তদন্ত) ওবায়েদুল হক জানান, মুলত মামলাটির বাদী হয়েছেন নিহত মোহাম্মদ আলীর মা ‘শিউলী’। ছেলের মৃত্যুর পর বাদী শারীরিক ভাবে এতটাই অসুস্থ ছিলেন যে থানায় এসে অভিযোগ করার পরিস্থিতি ছিলনা। পরে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সাথে নিয়ে শনিবার অভিযোগ করলে আমরা অভিযোগটি মামলা হিসেবে থানায় রেকর্ড করি। মামলায় মোশারফ হোসেনকে প্রধান আসামী করে ২১ জনের নাম উল্লেখ করেছেন বাদী। আসামীদের রবিবার আদালতে প্রেরণ করা হবে।

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.