ফতুল্লা মডেল থানায় বাৎসরিক অপরাধ হালচিত্র

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

ফতুল্লা মডেল থানার বাৎসরিক অপরাধ হালচিত্রে গত এক বছরের ২০১৭ইং সালের (৩৬৫দিনে) বিভিন্ন অপরাধে মোট ১ হাজার ২শ‘৮৪টি মামলা রুজু হয়েছে ।এর মধ্যে মাদক উদ্ধার জনিত মামলা রুজু হয়েছে ৬শ‘১৮টি । গত এক বছরের (৩৬৫দিনে) ৩ কোটি ১১লাখ ৭৫ হাজার ২শ‘২৫ টাকার বিভিন্ন প্রকার মাদক দ্রব্য উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ । এছাড়া এক বছরে অপমৃত্যু মামলা রুজু হয়েছে ৮৫টি। এমনটাই জানালেন ইন্সপেক্টর (অপারেশন) মজিবুর রহমান ও ষ্টেটম্যান অফিসার এ.এস.আই রফিকুল ইসলাম-২।
পুলিশ সূত্রে জানাযায়, ফতুল্লা মডেল থানায় ১২ মাসে (এক বছরে) মোট মামলা রুজু হয়েছে ১২শ৮৪টি মামলা। ফতুল্লা থানার আইন শৃঙ্খলা জেলার অন্যান্য থানার চেয়ে উন্নতি ছিলো এমনটাই দাবী পুলিশ প্রসাশনের ও ফতুল্লা বাসীর। এই ভালো রাখার জন্য অকান্ত পরিশ্রম করে আসছে নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (‘ক’ অঞ্চল) মো. শরফুদ্দীন ও অফিসার ইনচার্জ মো. কামাল উদ্দিন ।
ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ গত এক বছরে বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্যের মধ্যে উদ্ধার করেন,ইয়াবা ট্যাবলেট ৭৪হাজার ৭শ‘৬৬টি পিস, ফেন্সিডিল ৩ হাজার ২শ‘৭৬ বোতল হেরোইন ৫শ‘ ২৪ গ্রাম, বিয়ার ৫শ‘৩ ক্যান, চোলাই মদ ৯০ লিটার, বিদেশী মদ ৮.৭৫ লিটার, প্যাথেডিন ১০ সি.সি । নিন্মে মাসিক মামলার বিষয় বস্তুসহ পরিসংখ্যান দেওয়া হলো:
জানুয়ারী মাস : মোট মামলা রুজু হয়েছে ৯০টি । মামলা গুলোহলো: হত্যা মামলা ১টি, পুলিশ সংক্রান্ত ১টি, নারী নির্যাতন ৮টি, চুরি ১টি, মাদক মামলা ৬৪টি, মারামারি (আদার সেকশন) মামলা ১৪টি । ।
ফেব্রুয়ারী মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ৯৩টি। মামলাগুলো হলো : দস্যূতা মামলা ১টি, হত্যা মামলা ২টি, নারী নির্যাতন ও শিশু নির্যাতন ৬টি, চুরি ১টি, অপহরন ২টি, অস্ত্র মামলা ১টি, মাদক মামলা ৬৪টি, আদার সেকশন মামলা ১৬টি ।
মার্চ মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ৯৮টি। মামলাগুলো হলো: হত্যা মামলা ৩টি, ধর্ষন মামলা ৩টি, নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে ৫টি, চুরি ২টি, মাদক মামলা ৬০টি, আদার সেকশন মামলা ২৫টি।
এপ্রিল মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হলো, ১১৯টি মামলা। মামলাগুলো হলো, হত্যা মামলা ২টি, ধর্ষন ১টি,শিশু নির্যাতন ৮টি নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে ৪ টি, চুরি ৩টি,অপহরন ২টি, মাদক মামলা ৮৬টি এবং মারামারি (আদার সেকশন) ১৩টি মামলা।
মে মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ১২১টি। মামলাগুলো হলো: দস্যূতা ১টি, হত্যা ২টি, ধর্ষন ৪টি, শিশু নির্যাতন ২টি, নারী নির্যাতন দমন আইনে ৬টি, চুরি ৩টি, পুলিশ সংক্রান্ত ১টি, মাদক মামলা ৮৪টি, মারামারি মামলা ১৮টি।
জুন মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ৯৯টি । মামলাগুলো হলো: ধর্ষন ১টি, নারী নির্যাতন ১টি, শিশু নির্যাতন ৭টি, চুরি ২টি, মাদক মামলা ৬৭টি এবং আদার সেকশন ২১টি।
জুলাই মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ১১৬টি। মামলাগুলো হলো: হত্যা ১টি,ধর্ষন ২টি, নারী নির্যাতন যৌতুক ও শিশু নির্যাতনসহ ৪টি, চুরি ৪টি, পুলিশ সংক্রান্ত ১টি, অস্ত্র মামলা ৩টি, মাদক ৮৭টি, মারামারি ১৪টি।
আগষ্ট মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ১০৮টি। মামলাগুলো হলো: হত্যা মামলা ৩টি, ধর্ষন ১টি, নারী নির্যাতন যৌতুক ও শিশু নির্যাতনসহ ৫টি, চুরি ৫টি, মাদক ৮১ টি, মারামারি ১৩টি ।
সেপ্টেম্বর মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ৯৫টি। মামলাগুলো হলো: হত্যা ২টি, ধর্ষন ৩টি, নারী নির্যাতন যৌতুক ও শিশু নির্যাতনসহ ১৩টি, চুরি মামলা ৩টি, অস্ত্র মামলা ১টি, মাদক মামলা ৫৭ টি, মারামারি মামলা ১৫টি।
অক্টোবর মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ১২০টি। মামলাগুলো হলো : হত্যা মামলা ৩টি, নারী নির্যাতন যৌতুক ও শিশু নিযার্তনসহ মামলা ৭টি, চুরি মামলা ৫টি, অস্ত্র ১টি, মাদক মামলা ৮৬টি, মারামারি ১৮টি।
নভেম্বর মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ১১৬টি। মাদক মামলা ৮৮টি,মারামারি মামলা ১৮টি, হত্যা মামলা ২টি, নারী নির্যাতন যৌতুক ও শিশু নির্যাতনসহ মামলা ৪টি, চুরি মামলা ৩টি ।
ডিসেম্বর মাস : এই মাসে মোট মামলা রুজু হয়েছে ১১০টি। মামলাগুলো হলো : হত্যা ১টি, ধর্ষন ১টি, নারী নির্যাতন ও শিশু নির্যাতনসহ ৫টি, চুরি ২টি, মাদক মামলা ৮৪টি, এবং মারামারি মামলা ১৭টি।

ফতুল্লা মডেল থানায় ২৩ হত্যা মামলার মধ্যে ৪টি হত্যা মামলার ক্লু বিহীন মামলার রহস্য উদঘাটন ও আসামী গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করে ১৬৪ ধারার জবান বন্দি প্রদানের ব্যববস্থা গ্রহন করেন।এছাড়া অস্ত্র উদ্ধার জনিত মামলা ৫টি। এই মামলায় গ্রেপ্তার করেছে ১১জন । উদ্ধারকৃত অস্ত্র হলো, বিদেশী পিস্তল ১টি, ম্যাগাজিন ১টি, গুলি ৯ রাউন্ড, দেশীয় তৈরী পাইপগান ১টি,বন্দুকের কার্তুজ ৫টি, রামদা ১টি, ছোরা ২টি,দা ১টি।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ ২০১৭ ইং সালের ৩৬৫টি দিনে মোট জি.আর.তামিল ১১২৬টি রিকল ১৮শ‘৯০টি,অন্যান্য ২৪শ‘৪৬টি সর্ব মোট হলো ৫৪শ‘৬২টি। সি.আর. তামিল ৪৪২টি রিকল ১৬শ‘৭৫টি,অন্যান্য ১৭শ‘১৬টি সর্ব মোট ৩৮শ‘৩৩টি। সাজা প্রাপ্ত তামিল ৭৫টি,এবং তালিকা ভূক্ত সন্ত্রাসী ১৬জন গ্রেপ্তার করেছে।
ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ কর্তৃক মোবাইল কোর্ট কর্র্তৃক ৫৬৭জন আসামীকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করেছে ।
ফতুল্লা মডেল থানার এই সফলতার পেছনে যিনি ছিলেন । তিনি হলেন ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ কামলা উদ্দিন। তিনি থানার আইন শৃঙ্খলা ও শৈল্পিক কাজের জন্য বিভিন্ন সংগঠন হতে সফল ও,সি হিসেবে একাধিক পুরস্কার পেয়েছেন। যা জেলার অন্যান্য অফিসার ইনচার্জরা পাননি। কামাল উদ্দিন থানার সার্বিক বিষয়ই জেলার অন্যান্য থানার চেয়ে ভালো রাখতে সক্ষম হয়েছে।
গত এক বছরে ওসি কামাল উদ্দিনের মাঠ পর্যায় সর্ব বিষয় সহযোগিতা করেছেন এরা হলেন, বদলী হওয়া যাওয়া সাবেক সীভিলটীম অফিসার এস,আই, মিজানুর রহমান -২, এস,আই,নাহিদ আহম্মেদ, এ,এস,আই কামরুল হাসান,বর্তমান সীভিল টীমের অফিসার এস,আই কাজী এনামুল হক ,এস,আই, শাফিউল আলম, এ,এস,আই তারেক আজিজ, তাইজুল ইসলাম। এছাড়া নিয়মিত অফিসারদের মধ্যে এস,আই রাজু মন্ডল, সাইফুর রহমান, মোজাহারুল ইসলাম, আতাউর রহমান আব্রাদ,এ,এস,আই আ.গাফ্ফার তালুকদার, মোকসেদ মোল্লা,রোমান খাকীও ভালো পার্ফম করেছে।
ফতুল্লা মডেল থানার ইন্সেপেক্টর (তদন্ত) মোহাম্মদ শাহ জালাল ইন্সপেক্টর (অপারেশন )মজিবুর রহমান ও
সেকেন্ড অফিসার এস,আই, ফয়েজ আহম্মেদ এরা কামাল উদ্দিনকে নানা ভাবে পাশে থেকে আদেশ নির্দেশ দায়িত্ব পালনে সহযোগিতা করায় থানার অবকাঠামো আইন শৃঙ্খলা ভালো ছিলো। যা ২০১৬ সালের চেয়ে ২০১৭ সালের পার্ফম সকল থানার চেয়ে উন্নতি শীর্ষে । প্রতি মাসেই ফতুল্লা মডেল থানার ও.সি কামালউদ্দিনসহ দারাগোরা জেলা পুলিশ সুপারের আয়োজিত মাসিক কল্যান সভা হতে ভালো কাজের পুরস্কার নিয়েছিলো ২০১৭ইং সালে ।

Leave A Reply