সোনারগাঁয়ে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যায় আটক-৬

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি জাকির হোসেনের ভাগিনা মোহাম্মদ আলীকে (৩০) ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করেছে মোশারফ মেম্বার বাহিনীর সন্ত্রাসীরা।
বুধবার রাত ১টার দিকে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের কান্দারগাঁও এলাকায় ইউনিক গ্রুপের রিজোর্ট সিটির বালু মাঠে এ হত্যা কান্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
সোনারগাঁ থানার পুলিশ রাতেই এ হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পিরোজপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোশারফ হোসেনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে, জসিম, আব্দুল হামিদ, শহিদুল্লাহ, হাবিবুর রহমান ও শামীম সরকারসহ আরো পাঁচ জনকে আটক করেছে। নিহত মোহাম্মদ আলী পৌরসভার সাহাপুর গ্রামের মৃত আরজান আলীর ছেলে। সে তার মা শিউলী বেগমের সঙ্গে পিরোজপুর ইউনিয়নের পশ্চিম কান্দারগাঁও গ্রামে নানা বাড়িতে বসবাস করতো।
মোহাম্মদ আলীর মামা পিরোজপুর ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি জাকির হোসেন জানান, ইউনিক গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান রিজোর্ট সিটি নামে একটি আবাসন প্রকল্পের পক্ষে মোশারফ হোসেন মেম্বারের নেতৃত্বে জোর পূর্বক বালু ভরাট করে তার পৈত্রিক জমি দখল করার চেষ্টা করে। জাকির হোসেন তাদের জমিতে সাইন বোর্ড সাটিয়ে বালু ভরাটে বাঁধা দেয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত বুধবার রাতে পরিকল্পিত ভাবে মোশারফ হোসেন মেম্বারের নেতৃত্বে ২০-২৫ জনের একটি সন্ত্রাসী দল তার ভাগিনা মোহাম্মদ আলীকে শামীম সরকারের মাধ্যমে বাড়ি থেকে ডেকে বালুর মাঠে এনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে মাথায় ও পায়ের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে। খবর পেয়ে সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ওবায়েদুল হক ঘটনাস্থলে গিয়ে মোহাম্মদ আলীকে মুমূর্ষূ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতাল নেয়ার পথে সে মারা যায়। সোনারগাঁ থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ওবায়েদুল হক জানান, এ হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রাতেই মোশারফ মেম্বারসহ ৬জনকে আটক করা হয়েছে। অন্য আসামীদেরকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
Share this:

Leave A Reply