ফুটপাত অবৈধ দখলমুক্ত রাখতে মেয়রের সহযোগীতা চাইবে দোকান মালিক সমিতি

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

শহরের সর্বত্র রাস্তার ফুটপাতে অবৈধ দোকানপাটের জন্য নারায়ণগঞ্জের বৈধ ব্যবসায়ীরা ব্যবসায়ীক ও আর্থিক ভাবে ব্যাপক ক্ষতি গ্রস্থ হচ্ছে। এ অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে তারা রাস্তার দুই পাশে অবৈধ ফুটপাত উচ্ছেদের জন্য ব্যবসায়ী নেতা ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের কাছে জোর দারি রেখেছেন। পরিপ্রেক্ষিতে এমপি সেলিম ওসমান ব্যবসীদের দাবী সমূহ লিখিত ভাবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়রের কাছে স্মারক লিপি আকারে জমা দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। সেই সাথে তিনি আশা প্রকাশ করে বলেছেন, আমার বিশ্বাস সিটি করপোরেশনের মেয়র আপনাদের শত শত ব্যবসায়ীর দাবী পূরণ অবশ্যই পূরণ করবেন। সেই সাথে ফুটপাতের অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করে নগরী সাধারণ মানুষের চলাচলে রাস্তা স্ব:স্তি ফিরে আসবে।

মঙ্গলবার ৫ ডিসেম্বর বিকেল ৪টায় নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের ৪র্থ তলায় ক্যাফেটেরিয়া নারায়ণগঞ্জ জেলা দোকান মালিক সমিতির উদ্যোগে ও আহবানে ব্যবসায়ীদের সমস্যা নিয়ে মত বিনিময় সভায় ব্যবসায়ী নেতা সেলিম ওসমানের কাছে এমন দাবী তুলে ধরেন ব্যবসায়ীরা।

রাস্তার দুপাশে ফুটপাতে অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদের জোর দাবী রেখে দোকান মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দরা বলেন, আমরা সিটি করপোরেশন থেকে ট্রেড লাইসেন্স নিয়ে, সরকারকে নিয়মিত ট্যাক্স দিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছি। কিন্তু রাস্তার দুপাশে ফুটপাতে অবৈধ দোকানপাটের কারনে ব্যবসায়ী এবং আর্থিক ভাবে আমরা ব্যাপক ক্ষতি সম্মুখিন হচ্ছি। দেখা যায় কোন কোন দিন আমরা সারাদিনে একটি পন্যও বিক্রি করতে পারি না। অথচ ফুটপাতের অবৈধ দোকানদাররা ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা বিক্রি করছে। এমন পরিস্থিতি বজায় থাকতে আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাবে। তাই এ অবস্থা থেকে পরিত্রানের জন্য আমরা অচীরেই রাস্তার দুপাশে ফুটপাতে অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করার দাবী জানান।

পরিপ্রেক্ষিতে এমপি সেলিম ওসমান বলেন, শহরকে দখলমুক্ত রাখতে প্রশাসনিক ভাবে দুটি দপ্তর রয়েছে। একটি হচ্ছে স্থানীয় সরকার অর্থাৎ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশেন। অপরটি হচ্ছে জেলা প্রশাসন। নগরীকে দখলমুক্ত করতে একে অপরকে সহযোগীতা করবে। সিটি করপোরেশন থেকে আইন জারী করবে এবং জেলা প্রশাসন সেটা বাস্তবায়ন করবে। আপনারা ব্যবসায়ীরা আপনাদের দাবী গুলো লিখিত ভাবে সিটি করপোরেশনের মেয়রের কাছে জমা দেন। সেই সাথে স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে অনুলিপি প্রদান করবেন। আশা করি মেয়র আপনাদের দাবী অবশ্যই পূরণ করবেন।

তিনি আরো বলেন, সিটি করপোরেশন থেকে বিপুল অর্থ খরচ করে রাস্তার উন্নয়ন করেছেন। পাশাপাশি রাস্তার সৌন্দর্য্য বর্ধনে ফুটপাতে টাইলস বসানো হয়েছে। কিন্তু ওই রাস্তা জনগন ব্যবহার করতে পারছেনা। রাস্তার দুপাশে অবৈধ দোকানপাট বসানো হয়েছে। আবার কিছু নেতা ফুটপাতে দোকান বসিয়ে চাদাঁবাজি করছে। যা কোন অবস্থায় মেনে নেওয়ার মত নয়। আপনারা লিখিত ভাবে সিটি মেয়রের সহযোগীতা কামনা করেন। একবার না হলে দশবার আপনার দাবী জানাবেন। এরপর যদি সমস্যার সমাধান না হয় তাহলে আমরা একত্রিত হয়ে অবৈধ দোকানপাটের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াবেন। নারায়ণগঞ্জে শুধু বৈধভাবে ট্রেড লাইসেন্স এবং ট্যাক্স প্রদানকারী ব্যবসায়ীরাই ব্যবসায়ী করতে পারবে। অবৈধভাবে কেউ কিছু করতে পারবে না।

এমপি সেলিম ওসমানের এমন পরামর্শ উপস্থিত সকল ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দরা সমর্থন করে সিটি করপোরেশনের মেয়রের কাছে লিখিতভাবে আবেদন করার সম্মতি প্রদান করেন।

জেলা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি ইউসুফ মিয়া শাহজাহান, সাধারণ সম্পাদক আরিফ দিপু, সিনিয়র সহ সভাপতি মাসুদুর রহমান খসরু, সহ সভাপতি হাসান ইমাম, জয়নাল আবেদীন টুলু, আব্দুর রউফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু সাদিক মিনার, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন, অর্থ সম্পাদক নবী হোসেন সহ অন্যান্য ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ।

Leave A Reply