৫টি অাসনে ৪৭ জন প্রার্থী বৈধ এবং ১৪টি বাতিল

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

অাসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জে ৫টি অাসনে ৬১জন প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছিলেন। যার মধ্যে ৪৭টি বৈধ এবং ১৪টি বাতিল ঘোষনা করা হয়েছে।

রবিবার (২ ডিসেম্বর) জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার রাব্বী মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

যার মধ্যে, নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনে ১০ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে ৮ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ ও ২জনের মনোনয়ন পত্র বাতিল বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

তারা হলেন, বতর্মান ও আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী এমপি গোলাম দস্তগীর গাজী, বিএনপির মনোনীণত প্রার্থী ও জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান, বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক উপদেষ্টা তৈমূর আলম খন্দকার, বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও কেন্দ্রীয় বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ভূইয়া, জাতীয় পার্টির মো. আজম খান, বাংলাদেশ কমিউনিষ্ট পার্টির মো.মনিরুজ্জামান চন্দন, ইসলামী আন্দোলনের মো. ইমদাদুল্লাহ ও মো.হাবিবুর রহমান। এছাড়াও জাকের পার্টির মাহফুজুর রহমান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. রেহান আফজাল এর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ-২ (অাড়াইহাজার) ৮জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন যার মধ্যে ৭জনের বৈধ এবং ১জনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষনা করা হয়।

তারা হলেন, আওয়ামীলীগের বর্তমান এমপি নজরুল ইসলাম বাবু, বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও সাবেক এমপি মো. আতাউর রহমান খান আঙ্গুর, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নাসির উদ্দিন, বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা মো. নজরুল ইসলাম আজাদ, বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মাহমুদুর রহমান সুমন, বাংলাদেশ কমিউনিষ্ট পার্টিল মো. হাফিজুল ইসলাম, জাকের পার্টির মো.মুরাদ হোসেন জামাল। এবং সতন্ত্র প্রার্থী অাবু হানিফ হৃদয়ের মনোনয়ন বাতিল করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ-৩ অাসনে (সোনারগাঁ) মোট ১৫জন মনোনয়ন দাখিল করেছিলেন এদিন ১০জনের বৈধ ও ৫জনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষনা করা হয়।

বৈধ্যরা হলেন, বর্তমান এমপি ও জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী লিয়াকত হোসেন খোকা, বিএনপির একক মনোনীত প্রার্থী আজহারুল ইসলাম মান্নান, স্বতন্ত্র প্রার্থী ও আওয়ামীলীগের সাবেক এমপি কায়সার হাসনাত, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনীত প্রার্থী মাওলানা মো. ছানাউল্লাহ নূরী, বাংলাদেশ কমিউনিষ্ট পার্টির মনোনীন প্রার্থী আঃ সালাম বাবুল, বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশনের মনোনীত প্রার্থী মো.মজিবুর রহমান, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডির এএনএম ফখর উদ্দিন ইব্রাহিম, জাকের পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তফা আমীর ফয়সল, মো. মুরাদ হোসেন জামাল, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির মো.রাশেদ ফেরদৌস।

এছাড়া যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে তারা হলেন, এরশাদের পালিত কন্যা অনন্যা হুসাইন মৌসুমী (স্বতন্ত্র), গণফ্রন্টের মো. সিরাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট বিএনএফ এর মো. সাহাব উদ্দিন হোসেন ভূইয়া, আওয়ামীলীগের প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলাম, আওয়ামীলীগ নেতা মো. মোশারফ হোসেন (স্বতন্ত্র)।

নারায়ণগঞ্জ-৪ অাসনে (ফতুল্লা – সিদ্ধিরগঞ্জ) ১৬জন দাখিল করলে ৫জনের বাতিল ঘোষনা করে ১১জনের মনোনয়ন বৈধ বলে ঘোষনা করা হয়।

বৈধ প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান এমপি ও আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী শামীম ওসমান, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও বিএনপির মনোনীত প্রার্থী মো. শাহ আলম, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির হিমাংশু সাহা, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদের সেলিম মাহমুদ, বাংলাদেশ বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টিল মাহমুদ হোসেন, ইসলামী আন্দোলনের মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, সিপিরির প্রার্থী ইকবাল আলী, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি বাংলাদেশ-ন্যাপ এর মো.ওয়াজি উল্লাহ মাতব্বর অজু, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের মো. শফিকুল ইসলাম, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ মনির হোসেন, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মো.জসীম উদ্দিন ।

এছাড়া বিএনপির সাবেক এমপি মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন (স্বতন্ত্র), জাতীয় শ্রমিক লীগের নেতা কাউসার আহমেদ পলাশ (স্বতন্ত্র), বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মামুন মাহমুদ, গোলাম মুহাম্মদ কায়সার (স্বতন্ত্র), জাতীয় পার্টির ছালাউদ্দিন মোল্লার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর-বন্দর) আসনে ১২ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। এরমধ্যে ১১ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষনা দিয়েছেন জেলা রিটানিং।

তারা হলেন, বর্তমান এমপি ও জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী একেএম সেলিম ওসমান, বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও মহানগর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম, নাগরিক ঐক্যের উপদেষ্টা এস.এম আকরাম, সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সাইদ আহম্মেদ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর হাজী মো.আবুল কালাম, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদের আবু নাঈম খান বিপ্লব, খেলাফত মজলিস এর হাফেজ মো.কবির হোসেন, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সৈয়দ বাহাদুর শাহ মুজাদ্দেদী, সিপিবির প্রার্থী এড. মন্টু ঘোষ, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির মো. আল আফতাব, জাকের পার্টির মোর্শেদ হাসান।

এছাড়া বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও মহানগর যুবদলের সভাপতি মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।

রবিবার (২ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মনোনয়নপত্র যাছাই-বাছাই সম্পন্ন হয়।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ- ১ ( রূপগঞ্জ ) আসনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী হিসেবে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান দিপু ভূঁইয়ার মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার রাব্বী মিয়া ।

রোববার ( ২ ডিসেম্বর ) নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে এই মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয় ।

উপস্থিত ছিলেন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক খোকন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন দেওয়ান, তারাবো পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আফজাল কবির, কাঞ্চন ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি গুলজার হোসেন, জেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইসমাইল মামুন, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আলতাফ হোসেন, হাফিজুর রহমান, যুবদল নেতা শামীম, বারেক, মোশাররফ, রমজানসহ অনেকেই ।

প্রসঙ্গত, আগামী ৩০ ডিসেম্বর সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। প্রার্থিতা প্রত্যাহার ৯ডিসেম্বর। আর প্রতীক বরাদ্দ ১০ ডিসেম্বর।

0 Shares
শেয়ার করুন.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.