স্বাধীনতা বিরোধীরাই ২১ শে আগস্ট গ্রনেড হামলা করেছিল-খোকা

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

এম পি লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন যারা বাংলাদেশকে ধংশ করিতে চায় , ১৯৭১সালে এ দেশে বিরোধীতা করেছিল , স্বাধীনতা বিরোধী ও ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল যারা তারাই ২১ শে আগস্ট গ্রনেড হামলা করেছিল । গতকাল সোমবার (২১ শে আগস্ট) বিকালে সোনারগাঁও জনপ্রতিনিধি ফোরাম উদ্যোগে ২১ শে আগস্ট গ্রনেড হামলার প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) ও জাতীয়পার্টির যুগ্নমহাসচিব গণমানুষের নেতা লিয়াকত হোসেন খোকা। তিনি আরো বলেন ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতি বিরোধী শান্তিপূর্ণ সমাবেশে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বক্তব্য দেওয়ার সময় গ্রেনেড হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। গ্রেনেড হামলার সময় মহান আল্লাহপাকের অশেষ রহমতে শেখ হাসিনা প্রাণে বেঁচে গেলেও শহীদ হয়েছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নারী নেত্রী বেগম আইভী রহমানসহ ২৪ জন নেতা-কর্মী। তিনি আরো বলেন শেখ হাসিনা নেতৃত্বে এ দেশ যখন উন্নয়ণ হচ্ছে ,স্বাধীনতা বিরোধীরাই এ দেশের উন্নয়ন ধংস করার জন্য সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের সৃষ্টি করছে , আল্লাহর রহমতে আগামী সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই নির্বাচন হবে । তিনি আরো বলেন আমাদের সোনারগাঁকে স্বপ্নের সোনারগাঁ গড়ে তুলতে চাই । সোনারগাঁয়ে ভাল ভাল জনপ্রতিনিধি নিয়ে জনপ্রতিনিধি ফোরাম গঠন করেছি। সোনরাগাঁয়ে ভাল মানুষ থাকিবে , মানুষ রুপী শয়তান থাকিতে পারবেনা । অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন এমপি লিয়াকত হোসেন খোকার সহধর্মীনি ও উপজেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান ডালিয়া লিয়াকত, উপজেলা জনপ্রতিনিধি ঐক্য ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ও বারদী ইউপি চেয়ারম্যান জহিরুল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান আহমেদ মোল্লা বাদশা, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা আবু নাইম ইকবাল, শম্ভুপুরা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ, কাঁচপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ ওমর, নোয়াগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান ইউসুফ দেওয়ান, জামপুর ইউপি চেয়ারম্যান হামীম শিকদার শীপলু, সনমান্দী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান হাজী শাহাবুদ্দিন সাবু, কাঁচপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সবুর খাঁন, বারদী ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দাইয়ান সরকার, পিরোজপুর ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, বৈদ্যেরবাজার ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ইসমাঈল হোসেন,সাদিপুর ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান নূর হোসেন, উপজেলা মানবাধিকার সংস্থার চেয়ারম্যান জাহানারা আক্তার, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা ইসলাম ফেন্সী, পৌর কাউন্সিলর জাহেদা আক্তার মনি, রিতা আক্তার, পারভীন আক্তার, শাহজালাল। সাদিপুর ইউপি মেম্বার রফিকুল ইসলাম, নূর জামাল, হাকিম উদ্দিন, মহাসিন মিয়া, ইসমাঈল হোসেন, আশরাফ উদ্দিন, সাবেক মেম্বার আব্দুল হামিদ, মাইনুদ্দিন, জাকির হোসেন ও আমির আলী। নোয়াগাঁও ইউপি মেম্বার আনোয়ার হোসেন, নেহাল উদ্দিন, মোস্তফা মোল্লা, সেলিম হোসেন, এবিএম রিপন, বাহাউদ্দিন, নুরুল ইসলাম, মহিলা মেম্বার মরিয়ম বেগম, রুবিনা আক্তার ও রেহেনা আক্তার। সনমান্দী ইউপি মেম্বার মহিউদ্দিন, জয়নাল আবেদীন, ফিরোজ আহমেদ, মহিলা মেম্বার লুৎফা আক্তার, খাদিজা আক্তার, সাবেক মেম্বার রুহুল আমীন, মতিউর রহমান ও হারুন মিয়া। বারদী ইউপি মেম্বার রফিকুল ইসলাম, ছানাউল্লাহ, নজরুল ইসলাম, বাবুল মিয়া, মহিলা মেম্বার পিয়ারা বেগম, জমিলা আক্তার ও জীবনী আক্তার। জামপুর ইউপি মেম্বার আলীজান, সগির হোসেন ভূঁইয়া গেলমান, ডা. লুৎফর রহমান, ছানাউল্লাহ, বকুল ভূঁইয়া, ইব্রাহীম মিয়া, মহিলা মেম্বার জরিনা আক্তার, নিলুফা আক্তার ময়না ও জমিলা আক্তার। পিরোজপুর ইউপি মেম্বার মজিবুর রহমান, মোশারফ হোসেন, আবুল হোসেন, জাহাঙ্গীর হোসেন, মহিলা মেম্বার মোর্শেদা আক্তার, মমতাজ বেগম ও উম্মে সালমা। বৈদ্যেরবাজার ইউপি মেম্বার আইয়ুব আলী, আব্দুল বাসেদ, মোহাম্মদ আলী, মজিবুর রহমান, মহিলা মেম্বার সুরাইয়া আক্তার ও আমেলা আক্তার। কাঁচপুর ইউপি মেম্বার নাজমুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, হাসান খাঁন, শাহ আলম, আমানুল্লাহ আমান, মহিলা মেম্বার ইসরাত জাহান পারুল ও মোর্শেদা আক্তার। মোগরাপাড়া ইউপি মেম্বার শফিউদ্দিন, মহিলা মেম্বার রহিমা আক্তার ও সাবিনা আক্তার, শম্ভুপুরা ইউপি মেম্বার সাবেদ আলী, ইকবাল হোসেন, শফিকুল ইসলাম, কবির হোসেন, সাজেদ আলী, মহিলা মেম্বার নূরতাজ বেগম, শারমিনসহ পৌরসভার অন্যান্য কাউন্সিলরবৃন্দ এবং ইউনিয়ন পরিষদের পুরুষ ও মহিলা মেম্বারবৃন্দ।
আরো উপস্থিত ছিলেন- সোনারগাঁ পৌরসভা জাতীয় পার্টির সভাপতি হাজী পিয়ার আলী, উপজেলা জাতীয় পার্টির প্রচার সম্পাদক মো. শহীদ, সাদিপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক আবুল হাশেম, জামপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহ্বায়ক ইমরান ভূঁইয়া, কাঁচপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফিরাজ আহমেদ, পিরোজপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টি নেতা হাজী সরোয়ার হোসেন, লুৎফর রহমান তোতা, শম্ভুপুরা ইউনিয়ন জাতীয় পার্টি নেতা মনির হোসেন তোতা, সনমান্দী ইউনিয়ন জাতীয় পার্টি নেতা আমজাদ হোসেন, বারদী ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি রফিকুল ইসলাম মেম্বার, জাপা নেতা রমজান আলী, শিল্পপতি লায়ন তোফাজ্জল হোসেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টি নেতা আনিসুর রহমান রানা, সোনারগাঁ উপজেলা যুব সংহতি নেতা জাবেদ রায়হান, অহিদুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্র সমাজের আহ্বায়ক ফজলুল হক, যুগ্ম আহ্বায়ক সেকান্দার আলীসহ উপজেলা জাতীয় পার্টি ও আওয়ামীলীগ এবং অঙ্গসংগঠনের প্রায় দশ হাজার নেতাকর্মী।

 

Leave A Reply