সিদ্ধিরগঞ্জে প্রতারক গ্রেফতার

0
বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম
নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে জমি বন্ধক রেখে অগ্রণী ব্যাংক থেকে উত্তোলন করা ঋণ পরিশোধ না করেই অন্যত্র জমি বিক্রির অভিযোগে এক প্রতারককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জমি ক্রয়কারী ভূক্তভোগী মোঃ মমিন আলী প্রতারক সেলিম মোল্লার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করলে সোমবার (৮ জুলাই) সকালে সিদ্ধিরগঞ্জের সিআই খোলা এলাকা থেকে প্রতারক সেলিম মোল্লাকে (৪৫) গ্রেফতার করে পুলিশ। ধৃত প্রতারক পাইনাদি পূর্বপাড়ার মোঃ ইয়ার উদ্দিনের ছেলে।
আদালতে করা মামলা সূত্রে জানা যায়, বিবাদী মোঃ সেলিম মোল্লা ২০১৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারী সিদ্ধিরগঞ্জ মৌজার সিএস ও  এসএ-১৪৫৮, আরএস-৫০৫৫ নং দাগে ৫৮ শতাংশের কাতে ৪ শতাংশ জমি বিক্রির প্রস্তাব করায় বাদী মোঃ মমিন আলীর স্ত্রী ও ভাবী তাসলিমার নামে ১৫ লক্ষ টাকার বিনিময়ে সেই জমি ক্রয় করে এবং বিবাদী তাদের বরাবরে রেজিষ্ট্রিকৃত পাওয়ার অব এ্যাটর্নী  করে দেয়।
কিন্তু এর আগে ২০১৪ সালের ২৬ আগষ্ট বিবাদী সেলিম মোল্লা (জমি বিক্রেতা) অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার ষ্টেশন শাখা-নারায়ণগঞ্জ থেকে ঐ জমি বন্ধক রেখে ৭ লক্ষ্য টাকা ঋণ গ্রহণ করে। জমি বিক্রির সময় যা ক্রয়কারীদের নিকট গোপন রাখে জমি বিক্রেতা সেলিম মোল্লা ।
পরে ২ জুলাই মঙ্গলবার ক্রয়কৃত জমিতে বাড়ি নির্মাণের প্রস্তুতি নিলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থলে এসে ক্রয়কারীদের সেলিম মোল্লার অপরিশোধিত ব্যাংক ঋণের কথা অবগত করেন যে, ২০১৪ সালে ব্যাংকে তপছিল বর্ণিত মর্গেজ রেখে বিবাদী ঋণ গ্রহণ করেন। কিন্তু ব্যাংকের কোন টাকা-পয়সা পরিশোধ না করায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ অর্থঋণ আদালত আইন ২০০৩ এর ১২ ধারায় বিধান মোতাবেক উক্ত তফছিল বর্ণিত সম্পত্তি বিক্রয়ের নিলামে বিক্রির দরপত্র বিজ্ঞপ্তি দেন।
পরে জমি ক্রয়কারীরা বিবাদী ও জমি বিক্রেতা সেলিম মোল্লাকে ব্যাংকের কথা জানালে সে বিষয়টি এড়িয়ে যায় এবং জমি ক্রয়ের অর্থ ফেরত অথবা ব্যাংকের ঝামেলা মিমাংশার কথা বললে সেলিম মোল্লা ক্রয়কারীদের হুমকি-ধমকি দিয়ে ভয়-ভীতি প্রদান করে। এমনকি তার নামে ৬/৭টি মামলা রয়েছে মামলা করে কোন লাভ হবে না বলে জানায়। পরে স্থানীয় গণ্যমান্যদের পরামর্শে বাদী পক্ষ বিজ্ঞ  চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট  আমলী আদালতে মামলা করেন।
এ প্রসংগে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার ষ্টেশনের ম্যানেজার মোহাম্মদ আতিকুর রহমান জানান, ধৃত সেলিম মোল্লা অত্যন্ত চতুর ও প্রতারক। ২০১৪ ইং সালের আগস্ট মাসে অগ্রণী ব্যাংক পাওয়ার ষ্টেশন শাখা থেকে নিপা এন্টারপ্রাইজ নামে ৭ লক্ষ টাকার বিনিময়ে সিসি হাইপো লোন করান। উক্ত ঋণের বিপরীতে আলামিন নগরের সিদ্ধিরগঞ্জ মৌজার ৪ শতাংশ জমি ব্যাংক বরাবর মরগেজ রাখেন। সে পরবর্তীতে ব্যাংকে নিয়মিত কিস্তি পরিশোধ না করে নানা সময় নানা তালবাহানা করে আসছিল। এ ছাড়া সে ব্যাংকের সাথে প্রতারণা করে সুকৌশলে তার মরগেজকৃত মূল দলিল সাব রেজিষ্ট্রার অফিস থেকে সংগ্রহ করে উক্ত জমি বিক্রি করে দেয়। আমরা কিছু দিন আগে ঘটনাটি জেনে তাকে ঋণ পরিশোধ করার জন্য চাপ প্রয়োগ করলে সে তার কোন কর্ণপাত না করে নানা তালবাহানা করে আসছে।
অপর দিকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা সুত্রে জানা যায়, সেলিম মোল্লা কয়েকটি মামলার এজাহারভুক্ত আসামী। সে বিভিন্ন লোকের সাথে দীর্ঘদিন যাবত প্রতারণা করে আসছে। সে বিভিন্ন সময় ক্ষমতাসীনদলের নাম ভাংঙ্গীয়ে এসব অপর্কম করে আসছে।
0 Shares
শেয়ার করুন.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.