সন্ত্রাসীদের ধারালো চাপাতির আঘাতে ২দিন পর জ্ঞান ফিরল হান্নানের

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হাসপাতালের বেডে মৃত্যুর প্রহর গুনছে এক যুবক। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ফতুল্লার লামাপাড়া এলাকায় সন্ত্রাসী সায়েদ আলীর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হান্নান নামের এক যুবককে কুপিয়ে আহত করে। হামলাকারীদের হামলার স্বীকার তরুন যুবক হান্নান ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে।
এদিকে এ ঘটনায় গুরুতর আহত হান্নানের বড় বোন রিনা বেগম বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করায় ঘটনার সাথে জড়িত হামলাকারীদের অব্যাহত হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। তাই ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
অভিযোগে রিনা বেগম জানান, গত রোববার রাত প্রায় ১২টায় তার ছোট ভাই মোঃ হান্নান (৩২) কাজ শেষে বাসায় ফেরার পথে লামাপাড়া এলাকায় অবস্থিত রমজানের দোকানের সামনে আসামাত্রই বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জে সজ্জিত হয়ে আগে থেকেই ওৎপেতে থাকা সন্ত্রাসী সায়েদ আলীর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হান্নানকে পথরোধ করে এবং হত্যার উদ্দেশ্যে একযোগে অতর্কীত হামলা চালায়। সন্ত্রাসীদের হাতে থাকা ধারলো চাপাতি, ছুরি ও লোহার রডের আঘাতে হান্নানের মাথার ডান পার্শ্বে ও কপালের উপরে গুরুতর রক্তাক্ত জখমসহ বাম হাত ও ডান পায়ের একাধিক স্থানে হাড় ভাঙ্গা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক নীলা ফুলা জখম হয়। এ সময় সন্ত্রাসীরা হান্নানকে মৃত ভেবে রাস্তায় ফেলে রেখে চলে যায়। পরে স্থাণীয় লোকজনদের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে হান্নানের আপনজনরা দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে গুরুতর রক্তাক্ত ও মুমূর্ষ অবস্থায় হান্নাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা প্রদান করেন। বর্তমানে হান্নান আশঙ্কা জনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি রয়েছে এবং মৃত্যু যন্ত্রনায় হাসপাতলের বেডে মৃত্যুর প্রহর গুনছে।
এদিকে, হামলার ঘটনার প্রায় ২দিন পর জ্ঞান ফিরে আহত হান্নানের। পরে তার জবানবন্দি অনুসারে বড় বোন রিনা বেগম বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এ ব্যাপারে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি কামাল উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় থানায় আহতের বড় বোন রীনা বেগম বাদী হয়ে সায়েদ আলীসহ তার সহযোগী মোঃ রশিদ, মোঃ হানিফ, মোঃ অন্তু, মোঃ হৃদয় ও মোঃ দিলু মিয়াসহ অজ্ঞাতনামা ৬/৫জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করছেন। ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

Leave A Reply