সদর ওসি কামরুলের ভয়ে অপরাধীদের ঘুম হারাম

0

বিজয় বার্তা ডট কম

নারায়ণগঞ্জ জেলা থেকে মাদক নির্মূলে চলছে পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযান। এসপি হারুন অর রশীদের নির্দেশে জেলার প্রতিটি থানায় থানায় চলছে এই অভিযান। তাই সদর মডেল থানাধীন এলাকায় মাদক নির্মূল করতে দিন রাত কাজ করছে ওসি কামরুল ইসলাম। যেখানেই যেই অবস্থায় পাচ্ছেন অপরাধীদের আটক করে নিয়ে আসছেন সদর মডেল থানা পুলিশ। ওসি কামরুলের নেতৃত্বে সদর মডেল থানা ‍পুলিশের প্রতিনিয়ত এই অভিযানে ইতিমধ্যে অনেক অপরাধীরা এলাকা ছেড়েছে। মাদক ব্যবসায়ীদের দৌরাত্বও কমেছে বহুগুন। মাদক সংকটে পড়েছে মাদক সেবীরা। মাদকের দাম বেড়েছে দ্বিগুন। মাদক সেবীদের কাছ থেকে জানা যায়, একশ টাকা মূল্যের ইয়াবা এখন মূল্য বেড়ে হয়েছে ৭০০ টাকা। এসপির নির্দেশে সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের প্রত্যেক থানায় পুলিশের অভিযানের চেয়ে সবচেয়ে বেশী অপরাধী আটক করার রেকর্ড করেছে সদর থানা পুলিশ। নারায়ণগঞ্জবাসী পুলিশের এমন অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। অপরাধ নির্মূল করে শান্তিপূর্ন নারায়ণগঞ্জ গড়তে পুলিশ বাহিনীকে এই অভিযান নিয়মিত করতে আহ্বান জানিয়েছে তারা।

চিহ্নিত মাদকব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ, ভূমিদস্যু, হত্যা মামলা সহ ছোট বড় কোন অপরাধী কাউকেই ছাড় দিচ্ছেন না ওসি কামরুল। আটককৃতদের  বেশিরভাগের বিরুদ্ধেই বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্ট রয়েছে। ওসি কামরুল ইসলাম সদর মডেল থানায় পুনরায় যোগদানের পর থেকেই একসাথে ২৩ জনকে আটক করেছেন। কোনদিন ছয়জন আবার কোনদিন ৭ জনকে আটক করছেন সদর মডেল থানা পুলিশ। প্রতিদিনই কোন না কোন অপরাধীকে আটক করছেন পুলিশ। অপরাধ নির্মূলে দিন রাত অপরাধীদের ঘরে ঘরে তল্লাশী চালাচ্ছে তারা। শহরে আবাসিক হোটেলগুলো ও জুয়ার বোর্ডে প্রতিনিয়ত অভিযান করছেন সদর থানা পুলিশ। অনেকাংশে কমে এসেছে এসব অপরাধমূলক কর্মকান্ড।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান, সদর মডেল থানাধীন প্রতিটি এলাকায় অপরাধ নির্মূলে প্রতিদিন আমরা অভিযান পরিচালনা করছি। আর এই অপরাধী যেই হোক কেন তাকে ছাড় দেওয়া হবে না। আমাদের সুযোগ্য পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ স্যার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছেন। আমরা সদর মডেল থানা পুলিশও মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স। তাই ধারাবাহিকভাবে আমাদের মাদকবিরোধী অভিযান চলতে থাকবে। কোনো মাদক ব্যবসায়ীদের ছাড় দেয়া হবে না। অপরাধীদের রাতের ঘুম হারাম করে ছাড়বো আমরা। আশা করি খুব অল্প সময়ের মধ্যেই সদর থানা এলাকাকে আমরা মাদকমুক্ত করবো। যতদিন পর্যন্ত এই শহর থেকে মাদক মুক্ত না হবে ততদিন পর্যন্ত এই মাদক বিরোধী অভিযান চলমান থাকবে।আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন দেশ ও জাতির কল্যানে আমি যাতে সব সময় কাজ করতে পারি।

 

 

0 Shares
শেয়ার করুন.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.