র‌্যাবের অভিযানে প্রতারক চক্রের ৩২ সদস্য গ্রেফতার

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

র‌্যাবের অভিযানে গাজীপুরের টঙ্গীতে একটি ভুয়া এমএলএম কোম্পানীতে অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের ৩২ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের কবল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে প্রতারণার শিকার ৭০ জন প্রতারিতকে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে টঙ্গীতে অবস্থিত ‘লাইফওয়ে বাংলাদেশ প্রাইভেট লিমিটেড’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। অভিযানে গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে ৪০টি মোবাইল ফোন, একটি কম্পিউটারের মনিটর, একটি সিপিইউ, একটি প্রিন্টার এবং বিপুল পরিমান ভুয়া ডকুমেন্ট (ভর্তি ফরম, নিয়ম ও শর্তবলী ফরম, পণ্য ক্রয়ের ভাউচার, আপোষ নামা, অঙ্গীকারনামা, সাপ্তাহিক হিসাব রেজিষ্টার, স্পনসর নোট রেজিষ্টার, টাকা জমার রশিদ, ষ্ট্যাম্প, হাজিরা বই ও পণ্য সরবরাহের চুক্তিপত্র) উদ্ধার করা হয়।

অভিযানে গ্রেফতারকৃতরা হলো, কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ নাছির হায়দান খান(৫৫), পরিচালক মোঃ আলতাফ হোসেন(৪৫), পরিচালক/শিক্ষক মোঃ আবু নছর(৫০) মার্কেটিং অফিসার মোঃ বাবুল হোসেন(৩১), ম্যানেজার মোঃ লুৎফর রহমান(৪০), মার্কেটিং মোঃ সেলিম রেজা(৩২), প্রশিক্ষক মোঃ জালাল আহম্মদ(৪০), অফিস সহকারী মোঃ শাহীন(২৪), মোঃ সিরাজ(২৫), ডিস্ট্রিবিউটর মোঃ সাজ্জাদ(২২), মোঃ মামুন খন্দকার(৩৪), মোঃ সাকিল(৩০), মোঃ নাজমুল হক(২৪), শ্রী পলাশ সরকার(২৪), মোঃ মাসুদ রানা(২২), মোঃ তালহা(২৪), মোঃ ছাইদুর(২২), মোঃ আঃ রহমান(২৪), জেভিয়ার জেংচাম(২৩), মোঃ সাকিব(২৩), এ্যালবিন(২১), মোঃ রহিম বাদশা(২১), বাপন(২৫), মোঃ রুবেল হোসেন(২৭), শিপন রায়(৩২), মোঃ আমিনুর রহমান(২৫), মোঃ তাছলিম উদ্দিন(২৯), মোঃ জাহিদুল ইসলাম(২২), মোঃ শওকত হোসেন(২১), মোঃ আরাফাত(২০), মোঃ আনোয়ার হোসেন(২৪) এবং মোঃ নাজমুল হক(২৬)।

গতকাল বিকেলে র‌্যাব-১১’র সহকারি পরিচালক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন চৌধুরী স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, অতীতে বিভিন্ন এমএলএল কোম্পানী প্রতারণার মাধ্যমে দেশের সাধারণ জনগণের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করেছে। এরই প্রেক্ষিতে সরকার পরবর্তীতে বিভিন্ন এমএলএম কোম্পানীর কার্যক্রম নিষিদ্ধ করেছে। তদুপরি বিভিন্ন এমএলএম কোম্পানী নানা পন্থায় এখনো প্রতারণা চালিয়ে যাচ্ছে এবং বেকার যুব সমাজকে চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে বিপুল পরিমান অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। প্রতারিত ও ভুক্তভোগী কয়েক জনের কাছ থেকে প্রাপ্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে এবং অনুসন্ধানে প্রাপ্ত অভিযোগের সত্যতার ভিত্তিতে র‌্যাব-১১’র একটি দল গাজীপুরের টঙ্গী থানাধীন মধুমিতা রোড হতে ‘লাইফওয়ে বাংলাদেশ প্রাইভেট লিমিটেড’ নামে এমএলএম কোম্পানীতে অভিযান চালিয়ে প্রতারকচক্রের ৩২ জন সদস্যকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ও জব্দকৃত নথিপত্র পর্যালোচনা করে জানা যায় যে, “লাইফওয়ে বাংলাদেশ প্রাইভেট লিমিটেড” নামে ভুয়া এমএলএম কোম্পানী মাসিক ১৬ হাজার ও তদুর্ধ টাকা বেতনের প্রতিশ্রুতিসহ লোভনীয় অফার দিয়ে পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে চাকুরী প্রত্যাশী বেকার যুবক-যুবতীদের ফাঁদে ফেলে। ভর্তির শুরুতে কোম্পানীর আর্থিক লাভ ও পণ্য বিক্রির কমিশনের আশ¡াসে বাধ্যতামূলক জামানত হিসাবে জন-প্রতি ৫৫ হাজার বা তদুর্ধ টাকা গ্রহণ করে। পরবর্তীতে প্রশিক্ষনের নামে সপ্তাহ খানেক কালক্ষেপন করে প্রত্যেককে নতুন ২ জন সদস্য সংগ্রহের শর্ত প্রদান করে। নতুন সদস্য সংগ্রহ করে দিলে সংগৃহীত টাকার সামান্য কমিশন প্রদান করে। নতুন সদস্য দিতে না পারলে কুট-কৌশলের আশ্রয় নিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে খালি ষ্ট্যাম্প ও আপোষনামায় জোরপূর্বক স্বাক্ষর নিয়ে তাড়িয়ে দেয়। প্রতিবাদ করলে ভাড়াটিয়া লোকজন দ্বারা আটকে রেখে শারীরিক নির্যাতনও করে থাকে।

অভিযানকালে ভুয়া এমএলএম কোম্পানীর সু-সজ্জিত অফিস থেকে প্রতারণার শিকার ৭০ জন ভূক্তভোগীদের উদ্ধার করা হয়।#

0 Shares
শেয়ার করুন.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.