ম্যানচেস্টার সিটি ও আর্সেনালের জয়

0

বিজয় বার্তা২৪ ডটকমঃ

গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে, ওয়েস্ট ব্রমকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। এ জয়ে ৩৭ ম্যাচ শেষে, ৭৫ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে সিটিজেনরা। এদিকে, আরেক ম্যাচে সান্ডারল্যান্ডকে ২-০ গোলে হারিয়েছে আর্সেনাল। ৩৭ ম্যাচ শেষে ৭২ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে আছে গানাররা।
২০ গজ দূর থেকে বুলেট গতির শট জাল খুঁজে নেন ব্রুইন।৫ মিনিট পরই সিটির হয়ে শেষ বারের মত মাঠে নামেন পাবলো জাবালেতা। ৭৬ মিনিটে জাবালেতাকে অধিনায়কের ব্যান্ড দিয়ে মাঠ ছাড়বেন কোম্পানি।
৮৪ মিনিটে জেসুস সুযোগ নষ্ট। প্রথমার্ধে বেশ বাজে খেলেছে আর্সেনাল। দ্বিতীয়ার্ধে জ্বলে ওঠে। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে, ইপিএলে এ মুহূর্তে সবচেয়ে সুখী দলের নাম বলতে বললে সবাই নিশ্চয়ই একবাক্যে বলবেন চ্যাম্পিয়ন চেলসির নাম। দ্বিতীয় স্থানটাও মোটামুটি পাকাপাকি করে ফেলেছে টটেনহ্যাম। কিন্তু সব যুদ্ধই এখন তিন নম্বর জায়গাটাকে ঘিরে। কারণ এখানে থাকলেই যে মিলবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার চাবি।
তৃতীয় স্থান নিশ্চিতের মিশনে নেমে তাই শুরু থেকেই ওয়েস্ট ব্রমকে চাপে রাখে ম্যানচেস্টার সিটি। ইতিহাদে লিগের শেষ ১১ ম্যাচে, অপরাজিত আছে গার্দিওয়ালার শিষ্যরা। না হারার সুখস্মৃতি, ফুটবলারদের আত্মবিশ্বাসে যোগাচ্ছিলো বাড়তি রসদ।
ম্যাচের ২৭ মিনিটেই কেভিন ডি ব্রুইনের সহায়তায়, গোল করে ম্যানচেস্টার সিটি’কে লিড উপহার দেন ব্রাজিলিয়ান গ্যাব্রিয়েল জেসুস। দু’ মিনিট পর, নিজেই ত্রাণকর্তা হয়ে ওঠেন ব্রুইন। দুর্দান্ত গোলে সিটিজেন সমর্থকদের উল্লাসে ভাসান এ বেলজিয়ান মিডফিল্ডার।
এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায়, গার্দিওয়ালার দল। বিরতি থেকে ফিরে নিজেদের নিরাপদ দূরত্বে নিয়ে যেতে আরো আগ্রাসী হয়ে খেলে স্বাগতিকরা।
৫৭ মিনিটেই আগুয়েরোর পাসে, গোল করে সিটিকে ৩-০ তে এগিয়ে নেন ইয়া ইয়া তোরে। পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে ওয়েস্ট ব্রম। অবশেষে ৮৭ মিনিটে রবসন কানুর গোলে ব্যবধান কমায় তারা। তবে, তাতে হার এড়াতে পারেনি ওয়েস্ট ব্রম। আর দারুণ জয়ে শীর্ষ তিনে থেকে মাঠ ছাড়ে ম্যানচেস্টার সিটি।
ম্যানসিটির মত একই লক্ষ্য নিয়ে সান্ডারল্যান্ডের মুখোমুখি হয়, আর্সেনাল। তবে, এমিরেটসে প্রথমার্ধটা বেশ দু:সহই কেটেছে ওয়েঙ্গার শিষ্যদের। দ্বিতীয়ার্ধে সব ভুল শুধরে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় তারা।
তবে, শুরুতেই আর্সেনাল সমর্থকদের বুকে কাঁপন ধরিয়ে দিয়েছিলেন নাচো। কিন্তু এ যাত্রায় আর্সেনালকে রক্ষা করেন চেক।
অবশেষে ৭২ মিনিটে মেসুত ওজিলের কাছ থেকে বল পেয়ে জালে জড়িয়ে আর্সেনাল শিবিরে স্বস্তি আনেন আলেক্সিস সানচেজ। এর নয় মিনিট পরই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এ চিলিয়ান স্ট্রাইকার।
এর আগে দু’দলের প্রথম লেগে ৪-১ গোলের জয়েও দুই গোল করেছিলেন সানচেজ। এ নিয়ে ইপিএলে মোট গোল ২৩ টি গোল করলেন সানচেজ। আর চিলিয়ান তারকার দাপটের রাতে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে আর্সেনাল।

Leave A Reply