মাসদাইরে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ২ জঙ্গি সদস্য আটক

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার মাসদাইর ভূইয়ার বাগ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) এর দুই সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

এসময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ল্যাপটপসহ বিপুল পরিমাণ উগ্রবাদী বই ও লিফলেট।

সোমবার দুপুরে র‌্যাব-১১ এর গণমাধ্যমে পাঠানে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গ্রেফতাররা হলেন আবু সাঈদ ও এসএম মাহাদী হাসান ওরফে গোলাম রাব্বী।

র‌্যাব-১১ এর অ্যাডিশনাল এসপি মো. আলেপ উদ্দিন উদ্দিন জানান, র‌্যাব-১১ এর আওতাধীন এলাকায় গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধির পাশাপাশি বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় রোববার রাতে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাব কর্মকর্তা আরো জানান, আবু সাঈদ ২০১১ সালে আদর্শ স্কুল থেকে এসএসসি পাশ করে এবং ২০১৬ নারায়ণগঞ্জ মেরিন একাডেমি থেকে মেরিন বিষয়ে ডিপ্লোমা করে। পড়াশোনার পাশপাপাশি ২০১৫ সালের দিকে অনলাইনে কাপড়ের ব্যবসা শুরু করে। ২০১৪ সালে চরমোনাই পীরের অনুসারী ছিলেন। চরমোনাই পীরের বিভিন্ন মাহফিলে গিয়ে ইসলামের প্রতি আকৃষ্ট হয়।

তিনি আরো জানান, পরবর্তীতে ফেসবুকে বিভিন্ন উগ্রবাদী পোস্ট পড়ে এবং ইউটিউব দেখে উগ্রবাদী চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়। পরবর্তীতে কথিত বড়ভাই এর মাধ্যমে ২০১৬ সালে আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) এ যোগদান করে। আনসার আল ইসলাম এ যোগদানের পর সে সংগঠনের দাওয়াতি কাজ করত। সে ফেইজবুকে ও অনলাইনের মাধ্যমে বিভিন্ন উগ্রবাদী লেখা পোস্ট করত এবং তা শেয়ার করে মানুষের মধ্যে পৌঁছে দিত।

র‌্যাব-১১ এর এ অ্যাডিশনাল এসপি জানান, ২০১৭ সালের শেষের দিকে নারায়ণগঞ্জে রাইটার্স নোট নামক ফিল্যান্সিং ব্যবসা শুরু করে। তার ফিল্যান্সিং অফিসে নিয়মিত আনসার আল ইসলামের হালাকা হতো। এ হালাকায় নারায়ণগঞ্জ ছাড়াও আশেপাশের জেলাগুলো হতে আনসার আল ইসলামের বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্যরা উপস্থিত হতো বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়। আবু সাঈদ নারায়ণগঞ্জের আনসার আল ইসলামের (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) সমন্বয়ক হিসাবে কাজ করত।

তিনি আরো জানান, আবু সাঈদ ও এসএম মাহাদী হাসান গোলাম রাব্বী দু’জনের বাসা একই এলাকায় হওয়ায় আবু সাঈদের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। তার মাধ্যমে এসএম মাহাদী হাসান গোলাম রাব্বী আনসার আল ইসলামে (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) যোগদান করে। সে আনসার আল ইসলামের দাওয়াত পাওয়ার পরে সংগঠনটির পক্ষে দাওয়াতি কাজ করত ও অনলাইনের মাধ্যমে বিভিন্ন উগ্রবাদী মতবাদ প্রচার করতো। এছাড়াও এসএম মাহাদী হাসান গোলাম রাব্বী সংগঠনটির ইয়ানত কালেকশন করত বলে স্বীকার করেছে।

0 Shares
শেয়ার করুন.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.