বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির মুক্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (এম.এল) লিবারেশন-এর নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ‘শ্রেণী শত্রুর রক্তে যার হাত রঞ্জিত হয় নাই সে যেন কমিউনিস্ট-ই নয়’ বিশ্ব সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ কমরেড চারু মজুমদারের এই মানদন্ড থেকে সরে যাওয়ার কারণেই দেশে দেশে কমিউনিস্ট পার্টি গুলো বিকশিত না হয়ে ক্ষেত্র বিশেষে ক্ষয়িষ্ণু হচ্ছে। কেউ কেউ সুবিধাবাদী লাইন গ্রহন করে বুর্জোদের লেজুড়বৃত্তির মাধ্যমে নিজেদের বিলিন করে দিচ্ছেন। আবার কমিউনিস্ট নামধারীদের কেউ কেউ বুর্জোয়াদের দয়া-দাক্ষিণ্যে এমপি মন্ত্রী হয়ে শ্রমিকশ্রেণীর সাথে চরম বিশ্বাস ঘাতকতা করছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, বিশ্বের দেশে দেশে সা¤্রাজ্যবাদী আগ্রাসন, যুদ্ধ, হত্যাযজ্ঞ আর লুটপাটের বিপরীতে সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনে এই সুবিধাবাদী অধঃপতিত লাইন পরিত্যাগ করে শ্রমিকশ্রেণীর মুক্তির বিপ্লবী রাজনৈতিক ধারা বিকশিত করা এখন সময়েরই দাবী হয়ে উঠেছে।

ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (এম.এল) লিবারেশন-এর নেতৃবৃন্দের সাথে বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি কর্তৃক আয়োজিত মুক্ত আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।

ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (এম.এল) লিবারেশন-এর কেন্দ্রীয় সম্পাদক মন্ডলীর অন্যতমনেতা কমরেড বাসুদেব বসু, বিপ্লবী চারু মজুমদারের একমাত্র পুত্র ও ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (এম.এল) লিবারেশন-এর কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড অভিজিৎ মজুমদার, নারীনেত্রী মিনা পাল ও সর্ব ভারতীয় স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি সুচেতা দে এ মুক্ত আলোচনাতে অংশ গ্রহন করেন।

লুটেরা ধনীকশ্রেণীর অপরাজনীতি প্রত্যাখ্যান করে মুক্তিকামী জনতার বিপ্লবী জোট গঠন করার আহবান করে এসময় গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক জননেতা কমরেড সাইফুল হক, পলিটব্যুরোর অন্যতমনেতা জননেতা কমরেড আবু হাসান টিপু, নারীনেত্রী কমরেড বহ্নিশিখা জামালী, জননেতা কমরেড আকবর খান, পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা রাশিদা বেগম।

কালির বাজারস্থ পার্টির কার্যালয় ভবনে বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি কমরেড মাহমুদ হোসেন-এর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় পলিটব্যুরোর অন্যতমনেতা কমরেড হানিফুল কবির, বাংলাদেশ টেক্সটাইল গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশন এর সভাপতি শ্রমিকনেতা এড মাহবুবুর রহমান ইসমাইল, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলন-এর নারায়ণগঞ্জ জেলার অন্যতম নেতা ও নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোট-এর সাধারণ সম্পাদক ধীমান সাহা জুয়েল, আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী’র সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন মন্টু, কবি অভিজিৎ রায় রঘু, সাবেক ছাত্রনেতা সুজিৎ সরকার, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির অন্যতমনেতা নাছির হোসেন প্রমূখ।

Leave A Reply