বন্দরে মাদ্রাসার ছাত্রীকে ধর্ষন

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিশ্ব নবী ইসলামিয়া মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী (১৫)কে ফুসলিয়ে ধর্ষনের পর মুখে হারপিক ঢেলে দিয়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। গত শনিবার রাতে ধর্ষিতা মাদ্রাসা ছাত্রী পিতা কবির হোমেন বাদী হয়ে বন্দর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। যার নং- ২৮(১১)১৭, তাং- ১১(১১)১৭। ধারা- নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সং/০৩) এর ৯(১), তৎসহ ৩০৭/৩৪ দঃবিঃ। এলাকাবাসী ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ১০ নভেম্বর শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টায় বন্দর থানার চরঘারমোড়া এলাকার কবির হোসেন মিয়ার মেয়ে মাদ্রাসা ছাত্রী (১৫) তার বিশেষ কাজে চাষাড়া শহীদ মিনার এলাকায় যায়। সেখানে একই থানার ঘারমোড়া কোনাপাড়া এলাকার মোস্তফা মিয়ার ছেলে রুবেল (২২) এর সাথে পরিচয় হয়। পরিচয় সূত্র ধরে শাহীদ মিনার এলাকায় একটি চায়ের দোকানে উভয়ে চা পান করে। আলাপচারিতা এক পর্যায়ে সন্ধ্যা ৬টায় লম্পট রুবেল মাদ্রাসার ছাত্রীকে ফুসলিয়ে ঘারমোড়া কোনাপাড়া এলাকার জনৈক আলমাছ মিয়ার বাগন বাড়ীতে নিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষন করে। এবং এ ঘটনা জানাজানি না করার জন্য ধর্ষিতা মাদ্রাসা ছাত্রীকে হত্যার হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়। ধর্ষিতা তার বাড়ীর সামনে এসে পৌছলে সন্ধ্যায় সাড়ে ৬টায় ধর্ষকের সহয়োগী অজ্ঞাত যুবক ধর্ষিতার ২ হাত চেপে ধরে রাখে। পরে ধর্ষক রুবেল ধর্ষিতাকে হত্যার জন্য তার মুখে হারপিক ঢেলে দেয়। ধর্ষিতার ডাক চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে ধর্ষক ও তার সহযোগি পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী ধর্ষিতাকে উদ্ধার নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তার পিতার সাথে থানায় এসে এ ব্যাপারে মামলা দায়ের করেন। ধর্ষক ও তার সহযোগিকে গ্রেপ্তারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান অব্যহত রেখেছে পুলিশ।

 

Leave A Reply