বন্দরে গৃহবধূকে শ্বাসরুদ্ধ ও গায়ে আগুন ঢেলে হত্যা

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নারায়ণগঞ্জে ২ সন্তানের জননীকে শ্বাসরুদ্ধ ও গায়ে আগুন ঢেলে হত্যার পর হাসপাতালে লাশ রেখে পালিয়েছে সোহেল(৪০)নামে এক পরকীয়া প্রেমিক। গত শনিবার রাতে নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানাধীন আলীনগর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। নিহতের নাম নিপা বেগম(৩৬)। সে ওই এলাকার প্রবাসী আতাউর রহমানের স্ত্রী। খবর পেয়ে বন্দর থানা পুলিশ গৃহবধূর শ্বশুরালয় পরিদর্শণ করেছে। রোববার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে ময়না তদন্ত শেষে তার লাশ গ্রামের বাড়ি মুন্সিগঞ্জ জেলার আড়িয়াল এলাকায় দাফন করা হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,বন্দরের আলীনগর এলাকার মৃত আজগর আলীর পুত্র সৌদী প্রবাসী আতাউর রহমানের সঙ্গে বিগত ১৫ বছর পূর্বে মুন্সিগঞ্জ জেলার আড়িয়াল থানা এলাকার আবদুল কাদিরের মেয়ে নিপা বেগমের সামাজিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর পরই স্বামী আতাউর রহমান চাকুরী নিয়ে বিদেশ পাড়ি জমান। স্বামী বিদেশ থাকায় স্ত্রী নিপা বেগম জনৈক সোহেলের পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি স্বামী ও তার পরিবারের সদস্যরা জানার পর তাদেরকে শাসিয়ে দেয়ার পরও নিপা তার পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন না করে তা অব্যাহত রাখে। শনিবার প্রেমিক সোহেল সকাল থেকেই সন্ধা পর্যন্ত নিপার ঘরে সময় কাটায়। রাত ৮টার সময় তার বড় জা’য়ের সঙ্গে শেষ কথা হয়। এর পর সকলের অজান্তেই প্রেমিক সোহেল গৃহবধূ নিপাকে গুরুতর অবস্থায় বাসা থেকে বের করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করে। সেখানে অষুধ আনার কথা বলে তার দু’ছেলে মারুফ ও আবদুল্লাহকে রেখে পালিয়ে যায়। পরে হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তাররা লাশের কোন লোকজন না পেয়ে নিপার বড় ছেলে মারুফকে দিয়ে তার চাচা ফজলুল হককে মোবাইল ফোনে জানালে শ্বশুরবাড়ির লেঅকজন দ্রুত হাসপাতালে চলে আসে। পর খবর পেয়ে গৃহবধূর স্বজনরা হাসপাতাল থেকে ময়না তদন্ত শেষে লাশ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে সেখানেই দাফন করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা দায়েয়েরের খবর পাওয়া যায়নি।

Leave A Reply