বন্দরে ইতালী প্রবাসীসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় মামলা

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

বন্দরে ইতালী প্রবাসী যুবকসহ তার পরিবারের ৫ সদস্যের বিরুদ্ধে ফেসবুকে আপত্তিকর ছবি পোষ্ট করায় আইসিটি আইনের ৫৭ ধারায় থানায় মামলা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় বন্দর থানায় মামলাটি দায়ের করেন আমেরিকা প্রবাসী আফসানা আরিফ মেঘলার বাবা আরিফুজ্জামান। মামলার আসামীরা হলেন আরিফুজ্জামানের ভগ্নিপতি লোকমান হোসেন,লোকমানের বড় ছেলে ইতালী প্রবাসী জনি ওরফে হৃদয় শেখ, ছোট ছেলে রনি, জনি ও রনির খালাতো ভাই দুবাই প্রবাসী রক্সি এবং রক্সির ছোট ভাই জসি।

মামলার বাদী আরিফুজ্জামান বলেন,তিনি বন্দরের দেউলী চৌরাপাড়া এলাকায় বসবাস করেন। তার মেয়ে আফসানা আরিফ মেঘলাকে বিয়ে করতে চেয়েছিল ইতালী প্রবাসী ভাগ্নে জনি। কিন্তু জনি লেখাপড়া না জানায় এবং তার মেয়ে উচ্চ শিক্ষিত হওয়ায় জনিকে বিয়ে করতে আপত্তি করে তার মেয়ে। পরে তার মেয়ের এক আমেরিকা প্রবাসীর সঙ্গে বিয়ে হয়ে যায়। একারণে দেশে ফিরে জনি তাদের বিরুদ্ধে কুৎসা রটাতে থাকে। এ নিয়ে প্রতিবাদ করায় গত ৯ জুলাই জনিসহ উপরেউল্লেখিত আসামীরা তাকে ও তার স্ত্রী সাথী আক্তারকে মারধর করে। এ নিয়ে স্থানীয় ভাবে বিচার শালিস হলে জনিকে স্থানীয় বিচারকরা জুতাপেটা করে। এ কারণে ক্ষুব্ধ জনি ইতালী ফিরে গিয়ে ফেসবুকে তার নিজের আইডি ও একটি ফ্যাক আইডি খুলে তার মেয়ে ও তার স্ত্রীর ছবি ফেসবুকে আপলোড করে কুরুচিসম্পন্ন বক্তব্য পোষ্ট করে। বিষয় গুলো নিয়ে তিনি তার আত্মীয় স্বজনের দ্বারস্থ হয়েও কোন প্রতিকার পাননি। এরমধ্যে গত ২৫, ২৬, ২৮ সেপ্টেম্বর এবং ৫ অক্টোবর তারিখে ওইসব ফেসবুক আইডি থেকে তার মেয়ে ও স্ত্রী সর্ম্পকে জঘন্য বক্তব্য প্রকাশ করা হয় ছবি দিয়ে। তাই উপায় না দেখে তিনি আইসিটি আইনের ৫৭ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন।

বন্দর থানার ওসি আবুল কালাম বলেন, ফেসবুকে পোষ্ট করা ছবি ও বক্তব্য গুলো দেখে প্রাথমিক ভাবে এটি আইসিটি আইনের ৫৭ ধারায় অপরাধ হয়েছে বলে প্রতীয়মান হওয়ায় মামলা নেওয়া হয়েছে। মামলার ৫ আসামীর মধ্যে ২ জন প্রবাসী। বাকী ৩ জনকে গ্রেফতারে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

 

Leave A Reply