প্রধানমন্ত্রীর জন্য বাংলাদেশ আজ বিশ্বের দরবারে রোল মডেল-শক্কুর মাহমুদ

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

জাতীয় শ্রমিকলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি জাতীয় শ্রমিক নেতা আলহাজ শুক্কুর মাহমুদ বলেছেন, আমি বলতে চাই, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারনে বিশ্ব দরবারে রোল মডেল হয়ে দাড়িঁয়েছে বাংলাদেশ। আমি নৌ-পথে আন্দোলন করেছিলাম ১৯৭৪ সালে তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য। তাই আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের নৌ-যানের সর্বস্তরের দায়িত্ব দিয়েছেন আমাকে।প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের দাবী সারা দেশের শ্রমিকদের ৮৭ ভাগ ন্যায্য দাবি বুঝিয়ে দেয়া হউক। আজকে যে দেশের হকারদের উৎক্ষাত করা হচ্ছে তাদেরকে পূর্নঃবাসন করে দেয়া হউক। নৌ যান শ্রমিকদের নূন্যতন বেতন ২০ হাজার টাকা করা হউক এবং সকল নৌ শ্রমিকদের মালিক পক্ষ হতে খোরাকীর ব্যবস্থা করা হউক। নৌ-পথে যে সকল অন্যায়, চাঁদাবাজি এবং হত্যা হচ্ছে আমি নৌ-পুলিশ কে বলব আপনারা এটি বন্ধ করুন।

বৃহস্পতিবার ১৪ মার্চ বিকাল ৫টায় নারায়ণগঞ্জ ৫নং সার ঘাট এলাকায় বাংলাদেশ নৌ-যান শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের আন্দোলন সংগ্রামের ৯ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়ার অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শুক্কুর মাহমুদ আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন আজ সারা বিশ্বে প্রশংসনীয়। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে আমরন কর্মসূচী বাস্তবায়ন করতে বদ্ধপরিকর হয়ে কাজ করছেন। যার ফলশ্রুতিতে আজ আমরা বাংলার মেহনতি মানুষ তার শ্রমের যথাযত পারিশ্রমিক পাচ্ছে। কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তার ঝুঁকি হতে পরিত্রানের জন্য আলাদা আলাদা বাহিনী প্রতিস্থাপন করছেন প্রধানমন্ত্রী। আমাদের নৌ পথে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, হত্যা-খুঁন সহ সকল প্রকার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য নৌ পুলিশ বাহিনী সরকারে পক্ষ হতে সর্বদা কাজ করছে। যা অতীতে কোন সরকারের আমলে ছিলো না।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী নৌ পথের উন্নয়নের জন্য নদীর পাড়ে ওয়াক ওয়ে নির্মান করছে। নদী পথের ১৫০ ফিটের মধ্যে কোন স্থাপনা নির্মান করা যাবে না দেশের প্রচলিত আইন অনুসারে অথচ দেখেন নদীর পানিতে আজ হাত দেয়া যায় না। নদীতে বর্জ্য না ফেলার জন্য আমরা প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা দাবি জানাবো সরকারের যে সকল আইন রয়েছে তা পূর্ন করার জন্য। খাবারে আজকে যে পরিমান বিষ মিশাচ্ছে তা বন্ধ করতে হবে। সমাজ থেকে সন্ত্রাস ও মাদক নির্মূল করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, আলোচনা সভায় সরদার আলমগীর মাসটারের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তি যোদ্ধা মাইনুদ্দিন আহমেদ বাবুল, মহানগর শ্রমিকলীগের সভাপতি কাজিম উদ্দিন প্রধান, বাংলাদেশ নৌ যান শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সবুজ শিকদার, বন্দর উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি ওহিদুর রহমান মাস্টার, নিজাম উদ্দিন খান, বিআইডাব্লিউটিএ ওয়াকার্স নেতা গোলাম মোস্তফা প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করে মিলাদ মাহফিলে বিশেষ দোয়া করা হয়।

শেয়ার করুন.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.