নিখোজ সাকির পিতা এপনের মিথ্যা অভিযোগে হয়রানি বন্ধের দাবিতে প্রতিবাদ সভা

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নিখোঁজ দেড় বছরের শিশু সাদমান সাকিকে উদ্ধারের জন্য প্রশাসনের নিকট জোড় দাবী জানিয়ে এবং নিখোঁজ সাকিকে নিয়ে পিতা এপনের দ্বারা সমাজের গণ্যমান্য ব্যাক্তি ও নিরীহ,নিরপরাধ ভাল মানুষদের ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মিথ্যা অভিযোগে হয়রানি বন্ধের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২রা মে) বিকেলে শহরের শেখ রাসেল নগর পার্ক সংলগ্ন মাঠে বৃহত্তর দেওভোগ এলাকাবাসীর আয়োজনে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এপনকে জিজ্ঞাসাবাদের দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, আমরা শিশু সাদমান সাকিকে অতিদ্রুত উদ্ধার করার জন্য প্রশাসনের নিকট জোড় দাবি জানাচ্ছি। আজকে সাদমানের পিতা এপন সম্মানী লোকের সম্মান নষ্ট করার জন্য মিথ্যা বলে সাকিকে অপহরণের অভিযোগে সমাজের ভালো নিরপরাধ লোকদের নামে মামলা দিয়েছে। এই নোংরা রাজনীতি ঠিক নয়। আর প্রশাসনের নিকট আমরা অনুরোধ জানাচ্ছি যে এপন যাকেই বলে তাকে গ্রেফতার করবেন না। শুধুমাত্র জিডি কিংবা অভিযোগের বলয়ে কোনো নিরপরাধ লোককে হয়রানি করবেন। প্রকৃত বিষয়টি উদঘাটনের জন্য ব্যবস্থা নিন। শুধুমাত্র একটি পক্ষ না এপন সহ এপনের পরিবারকে জিজ্ঞাসাবাদের ব্যবস্থা করুন প্রকৃত ঘটনা বের হয়ে আসবে।

নাসিক ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল বলেন, এই এলাকার মানুষ আমাকে ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি বানিয়েছে। আজকে শুধু ভালো কাজ করার জন্য আমাকে দেড় বছরের শিশু অপহরণের অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়েছে। সাকি নিখোঁজ হয় তখন আমার একটি অপারেশন হয়েছিলো, আমি তখন শয্যাশায়ী। অপহরণের পর এপনকে ফোন দিয়ে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করে এবং তার বাচ্চার খাবারের জন্য সাড়ে ৪ হাজার টাকা পাঠায় সেই নাম্বার কার এলাকাবাসী তা জানাতে চায়? পুলিশ তো মোবাইল ফোন ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে সেই অপরাধী তার ভাই সাদিমকে গ্রেফতার করেছিলো। তখন এপনই ঐরাতেই সাদিমকে ছাড়িয়ে আনে কোন উদ্দেশ্যে? এলাকাবাসী তা জানতে চায়। এইঘটনা দ্বারা প্রমাণিত হয় যে নিজের স্বার্থে বাচ্চাকে অপহরণের নাটক সাজিয়েছে এপন ও তার ভাই সাদিম। আমি আশাবাদী এপন ও তার পরিবারের লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাহলে শিশু সাকির খোঁজ অতি দ্রুত মিলবে।

বিশিষ্ট সমাজসেবক মনোয়ার হোসেন মনার সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এড. আসাদুজ্জামান আসাদ, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম আরাফাত, বীর মুক্তিযোদ্ধা আমিনুল ইসলাম, এহসানুল করিম চৌধুরী, সায়েম সিদ্দিকী, তোফাজ্জল হোসেন সহ বিভিন্ন সামাজিক ও ব্যবসায়ীক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।এছাড়া বৃহত্তর দেওভোগ এলাকার সর্বস্তরের জনগন।

0 Shares
শেয়ার করুন.

Leave A Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.