এই সরকার বিএনপি ও এদেশের জনগণকে ভয় পায়-শাখাওয়াত

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট শাখাওয়াত হোসেন খান বলেছেন, এই সরকার বিএনপি ও এদেশের জনগণকে ভয় পায় । তার জন্যই জনগণ কে রাজপথে আন্দোলনে বাধাগ্রস্ত করছে। এই সরকার পুলিশ বাহিনী উপর ভর করে ঠিকে আছে। একটি জুলুমবাজ সরকার মানুষের গনতান্ত্রিক অধিকার হরণ করেছে । ২০০৭ সালে এই দিনে বেগম খালেদা জিয়া কে কারাবন্দি করে । তারপর ঠিক একই দিনে তাকে কারামুক্তি দেয় । তারা চেয়েছিল বিএনপিকে ধ্বংস করতে কিন্তু তারা সফল হতে পারেনি । শহীদ জিয়া ও বেগম খালেদা জিয়ার আদর্শ থেকে নেতাকর্মীদের দূরে সরাতে পারেনি । বেগম খালেদা জিয়ার যে দুই মাস ব্যাপী নতুন সদস্য নবায়ন কর্মসূচি তা বাস্তবায়ন করছি । নারায়ণগঞ্জের প্রতিটি থানা ও ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে নতুন সদস্য নবায়নের মাধ্যমে বিএনপিকে শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে তৈরি করছি । যাতে করে আগামীতে বিএনপির যে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে পারি।

 

তিনি আরো বলেন, একটি সহায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে । যাতে করে এদেশের জনগণ তাদের পছন্দের সরকারকে ভোট দিতে পারে । বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরে একটি সহায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবিতে কর্মসূচি ঘোষণা করবে। ছাত্রদল, যুবদল, শ্রমিকদলসহ সকল অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে বেগম খালেদা জিয়া যে কর্মসূচি ঘোষণা করবে তা রাজপথে নেমে আন্দোলন সংগ্রামের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করবো।

সোমবার বিকেল ৪ টার দিকে শহরের ডিআইটি বাণিজ্যিক এলাকায় আলী আহমদ চুনকা পৌর পাঠাগার মিলনায়তনে মহানগর বিএনপির উদ্যোগে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ১০ তম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন ।

তিনি বলেন,মিয়ানমারের রোহিঙ্গা ইস্যুতে তিনি বলেন, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর যে নির্যাতন ও হত্যাকাণ্ডের আমরা তীব্র প্রতিবাদ জানাই । জাতিসংঘের প্রতি অনুরোধ করছি শান্তি বাহিনী দিয়ে রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা মুসলমানদের রক্ষা করতে। বাংলাদেশের ষোল কোটি মানুষ যদি আমরা থাকতে পারি তাহলে দশ লক্ষ রোহিঙ্গা মুসলমানরাও থাকতে পারে । সরকারকে রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য উদ্যোগ নিতে হবে ।

বন্দর পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. শাহ মাজহারুল ইসলাম’র সভাপতিত্বে ও মহানগর মৎস্যজীবী দলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক পারভেজ মল্লিকের সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এড. আজিজুল ইসলাম হান্টু ভূঁইয়া, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক এড. আনোয়ার প্রধান, জেলা পরিবহন শ্রমিক দলের সভাপতি হাজী নজরুল ইসলাম, বন্দর থানা যুবদলের সাবেক সভাপতি সামিউল্লাহ বাবুল, মহানগর বিএনপির নেতা হাজী ইসমাইল হোসেন, গুলজার হোসেন খান, মহানগর মৎস্যজীবী দলের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম রতন, বন্দর থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোঃ আলমগীর হোসেন , তৃণমূল দল কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এমএ হাসেম অপু, জেলা ছাত্রদল নেতা আরিফুল ইসলাম টিটু ঢালী, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা জাহাঙ্গীর বেপারী, অনেকেই।

এ সময় মিলাদ মাহফিল শেষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত এবং বেগম খালেদা জিয়ার সুস্বাস্থ্য ও দেশবাসীর মঙ্গল কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করা হয় ।

সভায় মিছিল নিয়ে আসা পুলিশের কাছে গ্রেফতার হওয়া সেচ্ছাসবেকদল নেতা জিয়া ও লিংকন সহ ৮ জনের মুক্তির দাবি জানান নেতৃবৃন্দ।

 

Leave A Reply