‘ইসকন’ সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে ডিসির কাছে স্মারকলিপি

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

পরিকল্পিতভাবে ধর্মের অপব্যাখ্যা করে লাঙ্গলবন্দের সাধারণ হিন্দু সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যগত ধর্মীয় মূল্যবোধকে আঘাত করে অতি সুক্ষ্ম উপায়ে লাঙ্গলবন্দ তথা সমগ্র নারায়ণগঞ্জে সাম্প্রদায়ীক সম্প্রীতি বিন্ষ্ট করার পায়তারার অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের ‘ইসকন’ সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়ার কাছে স্মারকলীপি দিয়েছে শ্রী শ্রী রক্ষা কালী মন্দির পঞ্চায়েত কমিটি।

স্মারক লিপিতে শ্রী শ্রী রক্ষা কালী মন্দির পঞ্চায়েত কমিটি উল্লেখ করে, আমরা লাঙ্গলবন্দস্থ জহরপুর মুনিঋষি পাড়ায় বংশ পরম্পরায় বসবাস করে আসছি। আমাদের সনাতন ধর্মীবলম্বীদের বিশ^াস মতে জহরপুর শ্রী শ্রী রক্ষা কালী মন্দিরকে ঘিরে আমাদের পঞ্চায়েত ব্যবস্থায় শান্তিপূর্ণভাবে নিত্য পূজাসহ ধর্মের রীতিনীতি পালন করে থাকি। এমতাবস্থায় গত ২০১৬ ও ২০১৭ সালে মহাতীর্থ লাঙ্গলবন্দ অষ্টমী ¯œানকে ঘিরে চিহ্নিত মহল আমাদের প্রথাগত এই ধর্মীয় বিশ^াসকে অবজ্ঞা করে তাদের নিজস্ব মতামত আমাদেও উপর জোরপূর্বক চাপিয়ে দেয়ার হীন অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়ে উঠেছে। এরই ধারাবাহিকতায় এ বছর ৯ জুলাই তারিখে আষাঢ়ী ও গুরু পূণিৃমার ¯œাণ উপলক্ষে সেই চিহ্নিত মহল অর্থাৎ ‘ইসকন’ আমাদের মুনিঋষিপাড়া শ্রী শ্রী রক্ষা কালী মন্দিরে হামলা চালিয়ে মন্দির দখলের চেষ্টা করে এবং তাদের মতামত আমাদের উপর চাপিয়ে দিতে চায়। কিন্তু গ্রাম পঞ্চায়েত ও মন্দিও পরিচালনা কমিটির প্রতিরোধের মুখে তারা এ যাত্রায় ব্যর্থ হয়। ‘ইসকন’ প্রতিনিয়তই আমাদেও ধর্ম বিশ^াসে কুৎসা রটায় এবং তাদেও শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণে সাধারণ মানুষের উপর বল প্রয়োগ করে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অপরিচিত লোকদের মাধ্যমে আমাদেরকে হুমকি প্রদান করছে। এমনকি আমাদের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ^াসকে পুঁজি করে ‘লাঙ্গলবন্দস্থ ব্রহ্ম মন্দিরে গরু জবাই হয়েছে’ মর্মে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করা হয় এবং পঞ্চায়েত কমিটির বিরুদ্ধে মানবাধীকার কমিশনে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। এই মিথ্যা মামলার বাদী মধাব চক্রবর্তী নারায়ণগঞ্জের অধিবাসী নন, তিনি ঢাকায় থাকেন। সরেজমিনে এলাকায় তদন্ত করিলে প্রকাশ পাবে, সে একজন ধর্মের লেবাসধারী মাদকসেবী ও মাদক বিক্রেতা। আর এই মাধব চক্রবর্তীর মাধ্যমে ঐ চিহ্নিত ‘ইসকন’ গোষ্ঠি এবং নারায়ণগঞ্জের কতিপয় হিন্দু মহাজোট নেতা লাঙ্গলবন্দে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

এমতাবস্থায় আমাদের নিত্য পূজাসহ সকল ধর্মীয় অনুষ্ঠানাদি নির্বিবাদে শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার জন্য বিষয়টি ধর্মীয় এবং জনস্বার্থের গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করার জন্য এবং সরেজমিনে তদন্তপূর্বক দোষীদেও বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসকের কাছে আহবান জানান শ্রী শ্রী রক্ষা কালী মন্দির পঞ্চায়েত কমিটি।

স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন শ্রী শ্রী রক্ষা কালী মন্দির পঞ্চায়েত কমিটির পঞ্চায়েত প্রধাণ মনি দাশ, নারায়ণগঞ্জ মহানগর পূজা উদযাপণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিখণ সরকার শিপন, যুগ্ম সম্পাদক উত্তম সাহা, বন্দর থানা পূজা উদযাপণ পরিষদেও সিনিয়র সহ সভাপতি মনোরঞ্জন দাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক রিপন দাশ প্রমূখ।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ মহানগর পূজা উদযাপণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিখণ সরকার শিপন বলেন, ‘ইসকন’ কতৃক মন্দির অভ্যন্তরে নিত্যপূজা সহ সব রকমের পূজা পার্বনে কুৎসা রটানো এবং পঞ্চায়েত কমিটির বিরুদ্ধে মানবধীকার কমিশনে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের কওে লাঙ্গলবন্দে একটা সাম্প্রদায়ীক পরিস্থিতি সৃষ্টির যে পায়তারা চলছে, আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই এবং এর প্রতিকারের জন্য যথাযথ কতৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করি।

Leave A Reply