আড়াইহাজারে মামলা তুলে না নেওয়ায় ৬ জনকে কুপালো আসামীরা

0

বিজয় বার্তা ২৪ ডট কম

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে একটি হত্যা মামলা তুলে না নেয়ায় মামলার আসামীরা শনিবার সকালে একই পরিবারের ছয় জনকে কুপিয়ে আহত করেছে। এসময় বাড়ি-ঘরে ভাংচুর, লুটপাটের ঘটনা ঘটিয়েছে দূর্বৃত্তরা।

আহতরা হলেন, মাছুম (৩০), ঝর্ণা আক্তার(৩২), টুম্পা (২৫), আমির (৩৫), লিমা (২৬) ও আমিনা (৫৫)। এদের মধ্যে মাছুম, লিমা ও ঝর্ণাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাপাসালে পাঠানো হয়েছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। উক্ত এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

জানা গেছে, উপজেলার বিশনন্দি ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের মৃত অহিদ শরীফের বাড়িতে হামলা চালায় একই এলাকার শহিদের নেতৃত্বে একদল লোক। দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে গৃহকর্তার ছেলেকে এলোপাথারি কুপিয়ে এবং রড ও হকিস্টিক দিয়ে পিটিয়ে তাদের হাত-পা ভেঙ্গে দেয়া হয়। এক পর্যায়ে তাদের বসত বাড়ির দুইটি ঘর ভাংচুর চালিয়ে বাড়ির মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন আহদের মূমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এদের মধ্যে মাছুম, লিমা ও ঝর্ণাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাপাসালে পাঠানো হয়েছে।

আহত টুম্পা জানান, ২০১০ সালে উক্ত সন্ত্রাসীরা তার ভাই মামুনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে প্রকাশ্যে হত্যা করে ছিল। পরে পিতা অহিদ শরীফ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা করে। সম্প্রতি তার পিতা মামলার বাদী অহিদ শরীফ মারা যান। মামলাটি তুলে নেওয়ার জন্য পিতার মৃত্যুর পর দীর্ঘদিন ধরেই সন্ত্রাসীরা তাদের হুমকী দিয়ে আসছিল। তাদের কথামতো মামলা না তোলায় তাদের বাড়িঘরে হামলা ও লুটপাট চালিয়েছে তারা।

এদিকে, শহীদ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তাদের কোনো লোক কারোর ওপর হামলা বা লুটপাট করেনি।

গোপালদী ফাঁড়ির ওসি আহসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছে। তবে এ পর্যন্ত কেউ অভিযোগ দেয়নি।

Leave A Reply